আগামী ১৫ জুলাই পর্যন্ত আন্তর্জাতিক রুটে বাণিজ্যিক ফ্লাইট চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে ভারত। সে দেশের ডিরেক্টর জেনারেল অব সিভিল অ্যাভিয়েশনের পক্ষ থেকে এই কথা জানানো হয়। তবে ডিজিসিএ অনুমোদন প্রাপ্ত কার্গো বা অন্যান্য বিমানের উপর এই সিদ্ধান্তের প্রভাব পড়বে না।

করোনাভাইরাস আক্রান্ত দেশের তালিকায় ভারত এখন চতুর্থ স্থানে রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এ পর্যন্ত সেখানকার ৪ লাখ ৯০ হাজারের বেশি মানুষের শরীরে কোভিড-১৯ এর উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ১৫ হাজারেরও বেশি মানুষের।

২৫ মে থেকে ভারতের অভ্যন্তরে বিমান পরিষেবা সচল হয়েছে। তবে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ার বিষয়টি মাথায় রেখেই আপাতত আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা সচল না রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ডিজিসিএ। অবশ্য “বন্দে ভারত” মিশনের অন্তর্গত বিশেষ বিমান চলবে। তার মাধ্যমে বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়দের দেশে ফিরিয়ে নিয়ে আসা হবে।

এখন পর্যন্ত বেশিরভাগ দেশই ১০ শতাংশের কম আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা স্বাভাবিক করতে পেরেছে এবং তারা শুধুমাত্র নিজের দেশের নাগরিককেই ঘরে ফেরাচ্ছে। কয়েকটি দেশ অবতরণের অনুমতি দিলেও আইসোলেশনে কড়া বিধিনিষেধ কায়েম করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য