আনোয়ার হোসেন আকাশ, রাণীশংকৈল ঠাকুরগাঁও থেকেঃ ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈলে কিস্তিতে সুদের উপর টাকা নিয়ে। দিতে না পারায় হিন্দু সম্প্রদায়ের এক ব্যক্তিকে প্রকাশ্যে দিবালোকে বেদড়ক মারপিট করার। প্রতিবাদে এবং দোষীকে ২৪ ঘন্টার ভিতরে আটকের দাবীতে। হিন্দু সম্প্রদায়ের আয়োজনে এক মানববন্ধন হয়েছে।

মঙ্গলবার বেলা ১২টায় উপজেলা পরিষদের প্রধান ফটকের মহাসড়কে দাড়িয়ে প্রায় শতাধিক হিন্দু সম্প্রদায়ের ব্যক্তির অংশগ্রহণে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন থেকে আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের আটকের দাবী জানানো হয়।

এর আগে উপজেলার বাচোর ইউনিয়নের বাজে বকসা গ্রামের শ্রীঃ সুলেন চন্দ্রের ছেলে সুবল চন্দ্র রায়(২২) এ্কই ইউনিয়নের বাকসা সুন্দরপুর গ্রামের আমিরুল ইসলামের ছেলে মুঞ্জু আলমের(৩০)কাছে সুদের উপর কিস্তিতে টাকা নেই। টাকা
নেওয়ার কিছুদিন পরেই কোভিড-১৯ এর কারণে সুবেলের কাজকর্ম বন্ধ হয়ে পড়ায়।

সে কর্মহীন হযে পড়ে। সুবল সুদের কিস্তির নিয়ম অনুযায়ী টাকা পরিশোধে ব্যর্থ হয়।

কর্মহীন হয়ে পড়লেও সুবলকে টাকা পরিশোধের জন্য মানসিক চাপ অব্যাহত রাখে মুঞ্জু আলম।বার বার তাগাদা দেওয়া সত্বেও টাকা পরিশোধ না করার ক্ষোভে। গত ১৯জুন বেলা সাড়ে ১০টায় উপজেলার মীরডাঙ্গী বাজারে সুবলকে কৌশলে ডেকে নিয়ে
প্রথমে সুদের টাকা চাই। টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে মুঞ্জুসহ একই গ্রামের আব্দুর হামিদের ছেলে জাফর আলী(২৮)। আনার মিস্ত্রির ছেলে আলম(৩২)সহ সুবলকে বেদড়ক পিটিয়ে আহত করে।পরে মীরডাঙ্গী বাজারের মানুষেরা তাকে উদ্বার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় রাণীশংকৈল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিলেও।পুলিশের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা না নেওয়ার অভিযোগ মানববন্ধন থেকে তোলা হয়।

জানতে চাইলে অফিসার ইনর্চাজ আব্দুল মান্নান মুঠোফোনে বলেন,অভিযোগের আলোকে তদন্ত চলছে। দোষীদের আটক অব্যশই করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য