গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার সতীতলা গ্রামের সাহেব বাজার এলাকায় বাকী টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ৪২ জন আহত হয়েছেন।

আহতদের সাঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার কচুয়া ইউনিয়নের সতীতলা গ্রামের সাহেব বাজার নামক স্থানে মুরগী বিক্রয়ের পাওনা ৬শ’ টাকা কে কেন্দ্র করে ওসমানেরপাড়া ও সতীতলা গ্রামবাসীর মধ্যে ঘটনার দুই দিন আগে দুই দফা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়।

এর জের ধরে গতকাল দোকানদার আউয়ালের সাথে মুরগী বাকী নেওয়া আনারুলের সঙ্গে বাক বিতন্ডার সৃষ্টি হয়।

পরে ঘটনাটি জানাজানি হলে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীর লোকজনের সাথে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাধে। শেষে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে বড় সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। এতে উভয় পক্ষের ৪২ জন আহত হয়েছেন।

আহতদের মধ্যে মুমুর্ষ অবস্থায় একজনকে রংপুর মেডিকেল ভর্তি করানো হয়েছে। এ ঘটনায় সাঘাটা থানা ও বোনারপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

আহতরা হলেন, সতীতলা গ্রামের ছালেছ উদ্দিন (৫৫), খালেক (৫৫), বিদ্যুৎ (৩৩), মশিউর (৩৫), মালেক (৫০), জোনাব আলী (৪৫), মইন (১৬), আফতাব (৫৫), গোলজার (৫৫), মোখলেছ (৪৮), আসাদুল (৩৫), মজনু (৫০), নয়া মিয়া (৬৫), আনারুল (৫৫), রাহেনুল (৪৫), কামরুজ্জামান (৫৫), বাংটু (৪৬), রেজাউল (৫২), শহিদুল (৫৫), তুইমুদ্দি (৬৫), ছইমুদ্দি (৫৫), বাউরা (৩২), তাহেরা (৪০), হুমায়রা (১৪) ও ওসমানেরপাড়া গ্রামের হাছিবুর (৪৫), আইয়ুব (৫০), দুলাল (৫৫), বেলাল (৪৫), মান্নু (৫০), দোলন (২৫), আপন (১৬), রাশেদ (২৮), শেরেকুল (৪৮), নজরুল (২৫), রনি (২৩), রানা (২৫), চটকু (৩০), হায়দার (৫৫), লতিফ (৩৫), রবিউল (৫০), সাদ্দাম (৩৫), প্রিন্স (৩৮)।

এ ঘটনায় সাঘাটা থানার ওসি বেলাল হোসেন জানান, এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উক্ত ঘটনায় থানায় কোন লিখিত অভিযোগ আসেনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য