দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের আমতলী বাজার থেকে রায়পাড়া চলাচলের রাস্তায় মাঝখানে পল্লী বিদ্যুতের একটি খুঁটি দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বার-বার যোগাযোগ করলেও খুঁটিটি অপসারণের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছিল না।  পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর তা অপসারন করে রাস্তার পাশে স্থানান্তর করেন কর্তৃপক্ষ দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১।

এ নিয়ে গতকাল শুক্রবার দিনাজপুর নিউজসহ কয়েকটি জাতীয়, স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলামের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বিকেলের দিকে দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর আওতাধীন রাণীরবন্দর পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের ডিজিএম মিজানুর রহমান মিজানের তত্বাবধানে রাস্তার মাঝখানে অবস্থিত খুঁটিটি অপসারণ করে অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়। খুঁটিটি অপসারণ করায় সংবাদ মাধ্যম, উপজেলা প্রশাসন ও দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর প্রতি কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

আলোকঝাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আ স ম আতাউর রহমান ও ঐ এলাকার ইউপি সদস্যার স্বামী জাহাঙ্গীর ইসলাম বলেন, খুঁটিটি রাস্তার মাঝখানে থাকায় উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের প্রায় দেড় হাজার মানুষের চলাচলে অসুবিধা হত। এ রাস্তা দিয়েই তারা খানসামা, আমতলী বাজার ও পাকেরহাটে কৃষিজ পণ্য সহ যানবাহনে যাতায়াত করে। কিন্তু রাস্তার মাঝে বিদ্যুতের খুঁটি থাকায় কৃষকদের ধানসহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরবর্তী রাস্তা ঘুরে বাড়ি আসতে হয়েছিল। খুঁটিটি অপসারন করায় তারা ইউএনও ও ডিজিএমকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ খুঁটিটি অপসারণের জন্য দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর অফিসকে বলা হয়েছিল। পরে এ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশের ডিজিএমকে খুঁটিটি দ্রুত সময়ে স্থানান্তর করার কথা বললে তিনি তা স্থানান্তর করে দেন। এজন্য তিনি ডিজিএমসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ধন্যবাদ জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য