নীলফামারীতে অটো চালক জিয়া হত্যার প্রধান আসামীসহ জেলার শীর্ষ অপরাধীদের গ্রেফতারে সাংবাদিক সম্মেলন করেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান বিপিএম,পিপিএম। ২০ জুন নীলফামারী পুলিশ সুপার সম্মেলন কক্ষে বিভিন্ন ইলেকট্রিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে আয়োজন করা হয় সংবাদ সম্মেলন।

পুলিশ সুপার বলেন, গত ১৮ জুন সন্ধার পর ৫ জন ব্যক্তি হরিশ চন্দ্র পাঠ যাওয়ার কথা বলে অটো চালক জিয়ার চার্জার গাড়ি ভাড়া করে। ক্যানেলের রাস্তা দিয়ে যাওয়ার পথে ফাঁকা রাস্তায় অটো চার্জারটি ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে চালক জিয়াকে হত্যা করে ওই ৫ ব্যক্তি।

আনুমানিক রাত সাড়ে দশটার সময় সংবাদ পাওয়া মাত্র নীলফামারী থানার একটি মোবাইল টিম ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে ছিনতাইয়ের চেষ্টাকৃত অটো চার্জারটিসহ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ২ টি ছোরা উদ্ধার করে। আহত জিয়াকে নীলফামারী সদর হাসপাতালে আনা হলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করে।

এঘটনার প্রেক্ষিতে জিয়ার ভাই শাহাজালাল নীলফামারী থানায় অভিযোগ দায়ের করে। পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমানের নির্দেশে সদর থানায় ৪ টিম, জেলা গোয়েন্দা শাখার ২ টিম, জলঢাকা থানার মীরগঞ্জ তদন্ত কেন্দ্রের ২ টিম নিয়ে বিশেষ অভিযান চালিয়ে পাঠানপাড়া বাজার এলাকা হতে মামলার অন্যতম প্রধান আসামী ফজলে রাব্বীকে গ্রেফতার করা হয়।

এছাড়াও নীলফামারীর জলঢাকা, ডোমার উপজেলায় দোকান চুরি,অটো ভ্যান চুরির প্রধান আসামীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে নীলফামারী জেলা পুলিশ।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আতিকুর রহমান, সদর অফিসার ইনচার্জ মমিনুল ইসলাম মোমিন,সদর সার্কেল রুহুল আমীন ,ডিবি অফিসার ইনচার্জসহ আরও অনেকে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য