দিনাজপুর সংবাদাতাঃ একটি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষের চলাচলের রাস্তার মাঝখানে পল্লী বিদ্যুতের একটি খুঁটি সবার চরম দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এলাকায় কারো বিয়ে হলেও ৩ কিলোমিটার ঘুরে চলাফেরা করতে হয়।
দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামে চলাচলের রাস্তার মাঝখানে এই খুঁটি নিয়ে এলাকাবাসী কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বার-বার যোগাযোগ করলেও খুঁটিটি অপসারণের উদ্যোগ আজ নেওয়া হয়নি।

গোবিন্দপুর গ্রামের রাস্তাটির মাঝখানে বৈদ্যুতিক খুঁটিটি থাকায় সেখান দিয়ে ব্যাটারিচালিত ভ্যান চলাচল করতে পারছে না। বাঁকা হয়ে ভ্যান পার করতে কখনো কখনো পিছনের একটি চাকাও উল্টে যায়। বিপরীতমুখী যান চলাচলেও সমস্যা দেখা দেয়। খুঁটিটি অপসারণে কর্তৃপক্ষ এখনও ব্যবস্থা না নেওয়ায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

আমতলী বাজার এলাকার ভ্যানচালক মোহাম্মদ আলী বলেন, রাস্তার মাঝে বিদ্যুতের খুঁটি থাকায় ভ্যানে করে কৃষি পণ্যসহ ভারি মালামাল বহন করা যায় না। হাট-বাজারে ভারি মালামাল নিয়ে গেলে রাস্তা থাকা সত্বেও ৩ কিলোমিটার ঘুরে যেতে হচ্ছে।
এলাকার শরিফুল ইসলাম, মোকছেদুল, ময়নুল ইসলামসহ অনেকে বলেন, রাস্তার মাঝে বিদ্যুতের খুঁটি থাকায় সাইকেল, মোটরসাইকেল ও ভ্যান ছাড়া আর কার-মাইক্রো, ট্রাক্টর, ট্রলিসহ ভারি যানবাহনগুলো চলাচল করতে পারে না।

আলোকঝাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আ স ম আতাউর রহমান বলেন, খানসামা উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের প্রায় দেড় হাজার মানুষ এ রাস্তা দিয়েই খানসামা, আমতলী বাজার ও পাকেরহাটে যাতায়াত করে। কিন্তু রাস্তার মাঝে বিদ্যুতের খুঁটি থাকায় কৃষকদের ধানসহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরবর্তী রাস্তা ঘুরে বাড়ি আসতে হয়। এতে দূর্ভোগ ছাড়াও খরচ ও সময় উভয় বেশী হয়।

এ ব্যাপারে খানসামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ খুঁটিটি অপসারণের জন্য দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর অফিসকে বলা হয়েছে। তারা খুঁটিটি দ্রুত সময়ে স্থানান্তর করবেন বলে জানিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য