ফুলবাড়ী(দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে সরকারী কলেজের জমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণের প্রতিবাদে মানব বন্ধন করেছেন কলেজের বর্তমান ও সাবেক শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

আজ (১৮ই মার্চ) বৃহস্পতিবার সরকারী কলেজের সামনে ফুলবাড়ী-মাদিলা সড়কের দুপাশে দাড়িয়ে এক ঘন্টাব্যাপী এই মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন,কলেজের বর্তমান শিক্ষার্থী রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ৪র্থ বর্ষের ছাত্র তৌহিদুজ্জামান রাসেল,তানভির আহম্মেদ,মনির হোসেন, সাবেক শিক্ষার্থী সুজন আহম্মেদ,প্রমূখ।

এসময় বক্তরা অভিযোগ করে বলেন, ১৯৬৫ সালের ২৯মে জমির মালিক জমির আলী মোল্ল্যার কাছ থেকে দক্ষিণ বাসুদেব পুর মৌজার ২৪০ নম্বর দাগে ৯৭ শতাংশ জমি সরকারী কলেজ ক্রয় করে। কিন্তু পশ্চিম গৌরীপাড়া গ্রামের বাসীন্দা আবুল হোসেন নামে এক ব্যবস্যায়ী সরকারী কলেজের ওই সম্পত্তি দখল করে অবৈধভাবে ভবন নির্মানের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

একারণে কলেজ শিক্ষার্থীরা অবিলম্বে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে সরকারী কলেজের সম্পত্তি উদ্ধারে প্রশাসনের নিকট জোর দাবী জানায়। এসময় কলেজের প্রায় শতাধিক বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থী ব্যানার,ফেস্টুন নিয়ে মানববন্ধনে অংশ নেন।

কলেজ সূত্রে জানা যায়,উপজেলার পশ্চিম গৌরীপাড়া গ্রামের বাসীন্দা আবুল হোসেন নামে এক ব্যবসায়ী ফুলবাড়ী সরকারী কলেজের জায়গা দখল করে অবৈধভাবে ভবন নির্মানের কারণে ফুলবাড়ী থানাসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেন ফুলবাড়ী সরকারী কলেজ কর্তৃপক্ষ। কিন্তু করোনার কারণে কলেজ বন্ধ থাকায় গোপনে বিরোধপূর্ণ জমিতে অবৈধভাবে বহুতল ভবন নিমার্ণের কাজ চালিয়ে যাওয়ায় এই মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন শিক্ষার্থীরা। এসময় অবিলম্বে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের হস্থক্ষেপে ঐতিহ্যবাহী সরকারী কলেজটির সম্পত্তি রক্ষার দাবি জানান বক্তারা।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে ব্যবসায়ী আবুল হোসেন বলেন, জমির মুল মালিক জমির আলীর মোল্যার ২৪০ দাগের ২০৪ শতাংশ জমির মধ্যে ৯৭ শতাংশ জমি কলেজকে দেয়ার পর অবশিষ্ট ১০৭ শতাংশ জমির মধ্যে তার নিকট ১০০ শতক জমি বিক্রয় করে। তিনি তার ক্রয়কৃত জমিতে স্থাপনা তৈরী করছেন। কিন্তু কলেজের অধ্যক্ষ, মুলঘটনা আড়াল করে শিক্ষার্থীদের ভুল বুঝিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য