দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার পল্লীতে মঙ্গলবার বিকালে মিজানুর রহমান (৩৫) নামে এক ভ্যানচালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে নবাবগঞ্জ থানা পুলিশ।

সে পার্শ্ববর্তী ফুলবাড়ী উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রামের লাল মিয়ার পূত্র।এ ঘটনায় নিহতের ছোটভাই আনারুল ইসলাম বাদী হয়ে নবাবগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

নিহতের স্বজনরা জানান, ভ্যানচালক মিজানুর রহমান সোমবার সন্ধ্যায় ভ্যান নিয়ে ওষুধ ক্রয়ের জন্য বাড়ী থেকে বের হলে আর ফিরে আসেনি। পরদিন বিকালে নবাবগঞ্জের পুলবান্ধা গ্রামের রাস্তার পাশে জমি থেকে তার লাশ নবাবগঞ্জ থানা পুলিশ উদ্ধার করে।
নবাবগঞ্জ থানার আফতাবগঞ্জ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক নওয়াবুর রহমান জানান, উপজেলার জয়পুর ইউনিয়নের পুলবান্ধা গ্রামের নিকট রাস্তার পাশের জমিতে স্থানীয়রা নিহত মিজানুরের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আঃ রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

নিহতের ভ্যানটি পাওয়া যায়নি। প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন ও দোষীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য