দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের পার্বতীপুরে মাদকাসেবনে গুরুতর অসুস্থ্য ছেলেকে ষড়যন্ত্রকারি দুষ্টচক্রের হাত থেকে বাঁচাতে এক অসহায় মা সকলের সহযোগিতা চেয়ে আকুতি জানিয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ আকুতি জানান শহরের নতুন বাজারের বিশিষ্ট কাপড় ব্যবসায়ী সাগরিকা বস্ত্রালয়ের মালিক লাইলী মর্জিমা খাতুন (৬০)।

পার্বতীপুর প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে লাইলী মর্জিমা খাতুন লিখিত বক্তব্য বলেন, আমার ছেলে লতিফুর রহমান রিয়াদ মাদকাসেবনে গুরুতর অসুস্থ্য। রিয়াদের কথিত স্বশুর আমিনুল ইসলাম ও তার সহযোগী একটি অপরাধী চক্র তার মাদকাসক্ত অসুস্থ্য ছেলে রিয়াদ কে ভূল বুঝিয়ে তার পিতার রেখে যাওয়া সম্পত্তি আত্মসাত করার ষড়যন্ত করছে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, আমার ছেলে রিয়াদ মাদক সেবন করে গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়ায় গত ৮মে তাকে দিনাজপুরের ‘অশ্রু মাদক নিরাময় কেন্দ্রে’ ভর্তি করে দেই। যাতে সে সুস্থ্য হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারে।

কিন্তু রিয়াদের কথিত স্ত্রী আফরিন খাতুন ও শ্বশুর আমিনুল ইসলামের সাথে তৎপর ষড়যন্তকারী অপরাধী চক্র এঘটনাকে ‘অপহরন ও গুমের’ ঘটনা সাজিয়ে গত ৯ মে আমার মেয়ে জবেদা সুলতানা সাগরিকা, জামাই আনোয়ারুল ইসলাম, ভাই আলাউদ্দীন, সাইফুল ইসলাম বাবলু ও আমার পিতা লুৎফর রহমানকে জড়িয়ে পার্বতীপুর মডেল থানায় একটি মিথ্যা সাধারন ডাইরী করে।

বড় ছেলে রিয়াদকে ব্যবহার করে আমার পরিবারের অর্থ সম্পদ আত্মসাত করার গভীর ষড়যন্তে জড়িত চক্রটি বর্তমানে মাদক নিরাময় কেন্দ্র থেকে অসুস্থ্য ছেলেকে বাহির করে এনে তাদের অসৎ উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের চেষ্টা চালাচ্ছে। চক্রটি হত্যাকান্ডের মত ঘটনাও ঘটাতে পারে বলে তিনি আশংকা প্রকাশ করেন। তার অসুস্থ্য সন্তানকে ঘিরে সক্রিয় অপরাধীচক্র যাতে হীনস্বার্থ চরিতার্থ করতে না পারে এজন্য তিনি পুলিশ, রাজনীতিক, সাংবাদিকসহ সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে রিয়াদের বোন জবেদা সুলতানা সাগরিকা, বোন জামাই আনোয়ারুল ইসলাম, মামা প্রভাষক আলাউদ্দীন, সাইফুল ইসলাম বাবলু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য