সাধারণ ছুটি শেষে করোনা সংক্রমণ রোধে বেশকিছু নির্দেশনা ও শর্তাবলী দিয়ে সীমিত পরিসরে খুলে দেয়া হয়েছে সবকিছু। কিন্তু দেশের অন্যান্য জেলার মতো রংপুরেও সরকারি নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। এতে করে প্রতিদিনই অস্বাভাবিক হারে ভাইরাস সংক্রমণ বাড়ছে। এ পরিস্থিতিতে করোনা ঝুঁকি নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করাসহ জনসচেতনতা সৃষ্টিতে তৎপরতা বাড়িয়েছে রংপুর মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশ।

বুধবার (১০ জুন) দুপুর থেকে নগরীর বিভিন্নস্থানে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণসহ পুলিশ চেক পোস্ট বসিয়ে তল্লাশী চালানো হয়। এসময় পরিবহন শ্রমিক, মালিকসহ যাত্রী ও সাধারণ মানুষদেরকে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার জন্য আহবান করা হয়।

দুপুরে নগরীর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকায় বাস, ট্রাকসহ ছোট-বড় অন্যান্য যানবাহনে তল্লাশী চালিয়ে স্বাস্থ্যবিধি ও সরকারি নির্দেশনা অমান্য কারীদের সতর্ক করে দেন পুলিশের কর্মকর্তারা। এছাড়াও সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণে পথচারী থেকে শুরু করে পরিবহন মালিক, শ্রমকি, যাত্রী এবং স্থানীয় ব্যবসায়ীদের মাঝে লিফলেট বিতরণ করা হয়।

এব্যাপারে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর দপ্তর ও প্রশাসন) মো. মহিদুল ইসলাম বলেন, করোনা মোকাবিলা ও স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়াতে পুলিশ বিভাগ শুরু থেকেই ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে। সেই দিক থেকে রংপুর মহানগর পুলিশও পিছিয়ে নেই। অনেকে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরও আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি এই মহামারিকালে জনসচেতনতা বাড়াতে তৎপরতা অব্যহত রয়েছে।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক বিভাগ) উজ্জ্বল চক্রবর্তী, সহকারী পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক উত্তর) ফরহাদ ইমরুল কায়েস, সহকারী পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক দক্ষিণ) ইমরান হোসেন, টিআই (ট্রাফিক উত্তর) দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য