আনোয়ার হোসেন আকাশ, রাণীশংকৈল প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈলে মঙ্গলবার(৯জুন) দিবাগত রাতে একটি বাড়ীর সকল সদস্যদের অচেতন করে। ঘরের দরজার সিটকিনি ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে দূবৃত্তরা চুরির চেষ্টা চালিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটে পৌর শহরের দক্ষিণ সন্ধারই গ্রামের বুরো বাংলাদেশ অফিসের পার্শ্ববতী অবসর প্রাপ্ত বিমান সৈনিক সামসুল আলমের বাড়ীতে।

ঘটনাটি নিশ্চিত করে সামসুলের নিকট আত্নীয় ইউসুফ আলী বুধবার(১০জুন) দুপুরে সাংবাদিকদের জানান, গত মঙ্গলবার(৯জুন) সকাল থেকেই সামসুলের পরিবারের সকল সদস্য স্ত্রী ও দুই ছেলে অসুস্থবোধ করছেন। এবং কথাবার্তায় মাতালের মত এবং দু-চোখ ঠিক মত খুলতে পারছে না। এছাড়াও স্বাবাভিক চলাফেরা করতে পারছে না। এক কথায় অচেতন হয়ে পড়েছে।

এমন খবর পেয়ে পীরগঞ্জ উপজেলা থেকে আমি ও আমার স্ত্রী মঙ্গলবার সন্ধায় সামসুলের বাড়ীতে এসে তার ভাইসহ অন্যান্য আত্নীয়রা মিলে তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করি। পরে ঐ দিন রাত সাড়ে এগারোটায় অন্যান্য আত্নীয়রা সামসুলের বাড়ী থেকে চলে গেলেও আমি থেকে যায়।

ইউসুফ জানান, সেদিন রাত দেড়টায় আমি পাশাপাশি থাকা দুটি ঘরের দরজা বন্ধ করে। টিভির সাউন্ড কমিয়ে দিয়ে। সপা চেয়ারে বসে টিভি দেখছিলাম। এমন অবস্থায় আমার চোখে ঘুম আসলে সপাই মাথা দিয়েই ঘুমিয়ে পড়ি। কিন্তু হঠাৎ করেই বিকট শব্দ শুনে চোখ খুলে দেখি একজন অচেনা যুবক আমার সামনে দাড়িয়ে রয়েছে। কে বলে চিৎকার দিতেই সে মুর্হতের মধ্যেই উধাও হয়ে পড়ে। পরে আমার স্ত্রীকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে দুজুনে মিলে দেখি পাশের ঘরের দরজার সিটকিনি ভাঙ্গা। আমরা ধারণা করেছি ঘরে প্রবেশ করে জিনিস পত্র লুটের চেষ্টা চালায় দূবৃত্তরা। তবে সজাগ হওয়ায় তেমন কিছু বাড়ী থেকে নেওয়ার সুযোগ পাইনি দূবৃত্তরা।

স্থানীয়রা জানান, বর্তমানে বাড়ীর সকল সদস্যই বাড়ীতেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সবার চোখে এখনও প্রচন্ড ঘুম রয়েছে। স্থানীয়রা ধারণা করছেন ইতিমধ্যে রাণীশংকৈল উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বাড়ীতে অচেতন করার স্প্রে করে বাড়ীর সকল সদস্যদের অচেতন করে। ঘরের দরজা ভেঙ্গে মুল্যবান জিনিসপত্র লুট হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এরই ধারাবাহিকতার ঘটনা এটি হতে পারে।

বিছানায় শুয়ে স্যালাইনরত অবস্থায় অবসরপ্রাপ্ত বিমান বাহিনীর সদস্য সামসুল সাংবাদিকদের জানান, কাল রাতে যদি আমার এ আত্নীয় আমার বাড়ীতে না থাকতো। তাহলে হয়তো আমার বাড়ীর সকল মুল্যবান জিনিস পত্র লুট হয়ে যেত।

জানতে চাইলে অফিসার ইনর্চাজ আব্দুল মান্নান বুধবার সন্ধা ৬টায় মুঠোফোনে বলেন, ঘটনাটির বিষয়ে কেউ অভিযোগও করেনি। এছাড়াও চুরির বিষয়ে থানায় কোন অভিযোগও নেই। এক প্রশ্নের জবাবে ওসি বলেন, এই ঘটনাগুলোর কেউ মামলা করছে না।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য