ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ গতকাল চার প্রেমিক ও প্রেমিকাকে আটক করেছে। তারা কেউবা প্রেমের টানে আবার কেউবা সংসার বাধার আসায় ঘর ছেড়েছে।

এ দিকে তাদের অবিভাবকরা ভিন্ন কথা বলছে। এ নিয়ে এলাকায় দফায় দফায় দেন দরবার হলেও পুলিশ দুই জনকে আাদালতে পাঠিয়ে দিয়েছে।

আদালত প্রেমিকা অরুনিমা কুন্ডু (১৮) ও প্রেমিক মাহির শাহরিয়া (১৯) এর জবানবন্দি শ্রবন করে দুজনকে জাবিন মুন্জুর করেছে।

ঘঁটনাটি ঘটেছে ঘোড়াঘাট পৌর এলাকার বড়গলি গ্রামের হিন্দু তাপস কুন্ডুর কন্যা অরুনিমা কুন্ডু ও একই এলাকার কাজীপাড়া গ্রামের সাইদুর রহমানের ছেলে মাহির শাহরিয়ার সাথে দীর্ঘ দিনের প্রেম অতপর দুজনে আদালতে এবিডডেবিটের মাধ্যমে অরুনিমা কুন্ডু হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে মুসলিম ধর্ম গ্রহন করে দুজন দুজনাকে বিয়ে করে।

এতে অরুনিমার পিতা ও মাতা ঘঁনাটি মেনে না নেওয়ায় তাপস কুন্ডু ঘোড়াঘাট থানায় এশটি অপহরন মামলা রুজু করেন। এর ফলে পুলিশ তাদেক আটক করে গতকার জের হাজুতে পাঠিয়ে দেয়। আদালত তাদেরকে জাবিন মুন্জুর করেন এবং তারা একে অপরের সাথে ঘর সংসার করিতেছে।

অপর দিকে টাংগাইল জেলার গোপালপুর উপজেলার করিয়া নয়াপাড়া গ্রামের জয়নালের কন্যা ঝর্না খাতুন (১৮) ও ঘোড়াঘাট উপজেলার জালালপুর গ্রামের মজুমিয়ার ছেলে মোনোয়ার হোসেন (২২)এর সাথে প্রেম অতপর বিয়ে করায় থানায় কন্যা পক্ষ অভিযোগ করলে পুলিশ তাদেক আটক করেন এবং পরে দুইপক্ষ থানায় মিমাংসার মাধ্যমে ওই দুজনকে ছেড়ে নিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য