02. Yemeniসন্দেহভাজন আল-কায়েদা জঙ্গিরা শুক্রবার ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে হামলা চালিয়ে পাঁচ রক্ষীকে হত্যা করেছে। আল-কায়েদা দমনে সেনা অভিযানের প্রতিশোধ হিসেবে তারা এ হামলা চালায়। এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধ হয়।
এক নিরাপত্তা কর্মকর্তা এএফপিকে জানান, হামলার সময় প্রেসিডেন্ট আবদ্রাবুহ্ মনসুর হাদি প্রাসাদে ছিলেন না। বন্দুকধারীরা প্রাসাদ চত্বরের বাইরে একটি চেকপয়েন্টে দায়িত্বরত রক্ষীদের লক্ষ্য করে হামলাটি চালায়।
প্রেসিডেন্ট হাদি এই প্রাসাদে বাস করেন না এবং শুধুমাত্র দিনের বেলাতেই এখানে বিভিন্ন বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। হাদীর সরকার দেশটির আল-কায়েদার জঙ্গিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে।
ওই কর্মকর্তা আরো জানান, হামলাকারীরা পাঁচ রক্ষীকে হত্যার পর অন্যান্য রক্ষীদের আটক করে। চেকপয়েন্টটি প্রেসিডেন্টের প্রাসাদ থেকে মাত্র ৭০০ মিটার দূরে অবস্থিত।
নিরাপত্তা কর্মকর্তা ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উভয় পক্ষের মধ্যে ২০ মিনিটের বেশি সময় ধরে বন্দুকযুদ্ধ চলে।
এ ঘটনায় অন্তত ৩ হামলাকারী নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে।
পৃথক ঘঁনায় দক্ষিণ ইয়েমেন থেকে ফেরার পথে প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ নাসির আহমেদ ও অপর দুই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার গাড়িবহওে বন্দুকধারীরা আকস্মিক হামলা চালায়। তারা সে হামলা থেকে অক্ষত অবস্থায় রক্ষা পান। দক্ষিণ ইয়েমেনে সরকারি বাহিনীর সঙ্গে জিহাদীদেও সংঘর্ষ চলছে।
আহমেদ ইয়েমেনের আল-কায়েদা যোদ্ধাদের দমন করার শপথ নেয়ার কয়েক ঘন্টা পর এ আকস্মিত হামলা চালানো হয়।
আহমেদ বলেন, শিগগিরই আল-কায়েদা জঙ্গিদেও পতন ঘটবে।
২৯ এপ্রিল আল-কায়েদা ইন দ্য অ্যারাবিয়ান পেনিনসুলা (একিউএপি) ’র ঘাঁটি হিসাবে পরিচিত ইয়েমেনের তিনটি প্রদেশে সেনা অভিযান শুরু হয়। এগুলোর দুটি দেশটির দক্ষিণে ও একটি মধ্যাঞ্চলে অবস্থিত।
অভিযানে জিহাদীদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে সরকারি বাহিনী দাবি করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য