রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানা দীর্ঘ ৩৬ দিন পর লকডাউনের আওতামুক্ত হলো। ফলে এখন থেকে যে কেউ থানায় প্রবেশ করতে- বাহির হতে পারবে। সোমবার থেকে পুরোদমে কোতোয়ালি থানা ভবনে অফিসিয়াল কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মেট্রোপলিটন কোতোয়ালি থানার সেকেন্ড কর্মকর্তা এসআই এরশাদ আলী।

তিনি জানান, কোতোয়ালি থানার ওসি আবদুর রশিদ, ওসি (তদন্ত), এসআই রফিকসহ বেশ কয়েকজন পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছিল। ফলে গত ৪ মে রংপুর জেলা সিভিল সার্জন কোতোয়ালি থানা লকডাউন করা হয়েছিল। থানার কার্যক্রম থানা চত্বরে অবস্থিত ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে ভবনে স্থানান্তর করা হয়েছিল। দীর্ঘ ৩৬ দিন সেখানেই কার্যক্রম চলছিল। বর্তমানে ওসি আবদুর রশিদ, ওসি (তদন্ত), এসআই রফিকসহ পুলিশ সদস্য করোনা মুক্ত হয়েছেন। ফলে সোমবার থেকে পুরোদমে অফিসিয়াল কার্যক্রম থানা ভবনে শুরু করা হয়েছে।

এদিকে বিষয়টি নিশ্চিত করে রংপুরের সির্ভিল সার্জন ডা. হিরম্ব কুমার রায় জানান, কোতোয়ালি থানার ওসিসহ বেশ কয়েকজন পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্তের কারণে থানা লকডাউন ছিল। থানার সব কাজ পাশের দুটি ভবনে স্থানান্তরের করা হয়েছিল। তারা বর্তমানে সুস্থ্য হয়েছেন। ফলে থানা লকডাউন তুলে দেয়া হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য