ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা আড়াই লাখ ছাড়িয়েছে। সেদেশের সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভি ও কলকাতাভিত্তিক আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৯ হাজার ৯৮৩ জনের শরীরের ভাইরাসের জীবাণু পাওয়া গেছে। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ৫৬ হাজার ।ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনার থাবায় ২০৬ জনের প্রাণ গেছে। দেশটিতে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাত হাজার ১৩৫ জনে।

আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আক্রান্তের সংখ্যায় রাজ্যগুলোর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি, গুজরাট ও রাজস্থান। ভারতের মোট আক্রান্তের ৭০ শতাংশ এবং মোট মৃত্যুর ৭৮ শতাংশই হয়েছে এ পাঁচটি রাজ্যে। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা চীনকে ছাড়িয়ে গেছে। এ রাজ্যটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৮৫ হাজারের বেশি।

করোনায় কেবল মহরাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে তিন হাজার ৬০ জনের। গুজরাটে এক হাজার ২৪৯ জনের। এর পর রয়েছে দিল্লি। সেখানে মোট ৭৬১ জনের মৃত্যু হয়েছে। শতাধিক মৃত্যুর তালিকায় রয়েছে মধ্যপ্রদেশ (৪১২), পশ্চিমবঙ্গ (৩৯৬), উত্তরপ্রদেশ (২৭৫), তামিলনাড়ু (২৬৯), রাজস্থান (২৪০) ও তেলঙ্গানা (১২৩)।

গত ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিমবঙ্গে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৪৯ জন। এ নিয়ে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে আট হাজার ১৮৭ জনে। কেন্দ্রীয় সরকারের হিসাব অনুযায়ী রাজ্যটিতে ৩৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে রাজ্য সরকারের হিসাব অনুযায়ী এ সংখ্যা ৩২৪।

এখন পর্যন্ত দেশটিতে এক লাখ ২৪ হাজার ৯৫ জন সুস্থ হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন চার হাজার ৮০২ জন।
এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লকডাউন তুলে নেওয়ার প্রথ ধাপ কার্যকর হওয়ার মধ্যেই ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে শুরু করেছে। কম সংক্রমণ হয়েছে, এমন এলাকায় আজ থেকে আনলক-১ এর আওতায় উপাসনালয়, শপিং মল ও রেঁস্তোরা খুলে দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য