জার্মানি থেকে প্রত্যাহার করা মার্কিন সেনা নিজ দেশে মোতায়েনের ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছে পোল্যান্ড সরকার। ধারণা করা হচ্ছে- এসব সেনা যদি পোল্যান্ডে মোতায়েন করা হয় তাহলে তাতে রাশিয়া ক্ষুব্ধ হতে পারে। পোল্যান্ডের অবস্থান একেবারেই রাশিয়া সীমান্তের কাছে।

বেশ আগে থেকেই মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো জোট রাশিয়ার দোরগোড়ায় সেনা মোতায়েন করে রেখেছে এবং এই নিয়ে ন্যাটো জোট ও রাশিয়ার মধ্যে উত্তেজনা চলছে।

পোল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ম্যাথিউস মোরাভিকি গতকাল (শনিবার) মার্কিন সেনা গ্রহণের ব্যাপারে আগ্রহ দেখান। এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জার্মানিতে সেনা উপস্থিতি কমানোর নির্দেশ দেন এবং সেদেশে যেসব সেনা মোতায়েন রয়েছে সেখান থেকে একটা অংশ প্রত্যাহার করার কথা বলেন।

জার্মানিতে আমেরিকার ৩৪,৫০০ সেনা স্থায়ীভাবে মোতায়েন করা রয়েছে। ট্রাম্পের নির্দেশ অনুসারে সেখান থেকে ৯৫০০ সেনা সরিয়ে আনা হবে।

মুনাফিকী পোল্যান্ডের একটি বেসরকারি রেডিও চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, “আমি গভীরভাবে আশা করছি যে, আমাদের ভেতরে যে বহু আলোচনা হয়েছে তার আওতায় জার্মানি থেকে প্রত্যাহার করা মার্কিন সেনা মোতায়েন করা হবে। অবশ্য এ ব্যাপারে আমেরিকার পক্ষ থেকে মূল সিদ্ধান্ত আসতে হবে।”

জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা ম্যার্কেলের সঙ্গে বেশ কিছুদিন ধরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সম্পর্কের অবনতি ঘটেছে। ন্যাটো জোটের সামরিক ব্যয় বাড়ানোর ব্যাপারে ডোনাল্ড ট্রাম্প চাপ সৃষ্টি করেছেন এবং এই নিয়েই জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেল মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রতি ক্ষুব্ধ হয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে-এরই অংশ হিসেবে জার্মানি থেকে সেনা সরিয়ে আনছে মার্কিন সরকার। -পার্সটুডে

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য