করোনাভাইরাসের কারণে এখন আগের মতো বাইরে গিয়ে কেনাকাটা করা হয় না। অনেকেই এক বা দুই সপ্তাহের জিনিস একসাথেই কিনে রাখছেন। কিন্তু, ফল, শাকসবজি এবং অন্যান্য খাদ্য সামগ্রী স্টোর করতে গিয়ে নানান সমস্যা দেখা দেয়। প্রচুর পরিমাণে জিনিস কেনার পাশাপাশি এগুলো দীর্ঘ সময়ের জন্য তাজা রাখা এবং খারাপ যাতে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখাও একটি বড় চ্যালেঞ্জ। তাই আপনি যখন ফ্রিজে জিনিসপত্র রাখবেন বিশেষ কিছু উপায়ে রাখতে হবে। কিছু পরামর্শ মানলে আপনি সবজি এবং ফল খারাপ হওয়া থেকে বাঁচাতে সক্ষম হবেন।

যে বিষয়ে খেয়াল করবেন-

  • ফ্রিজে জিনিস রাখার পদ্ধতি সঠিক হওয়ার পাশাপাশি, স্টোরেজের জন্য সঠিক বাক্স ব্যবহার করাও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্লাস্টিকের বাক্সগুলোর পরিবর্তে স্টিলের বাক্সগুলোতে পণ্যগুলো রাখুন।
  • কাটা শাকসবজি সংরক্ষণ করতে শাকসবজি আনার পরে সেগুলো ভালো করে পরীক্ষা করে নিন। অনেক সময় শাকসবজির কিছু অংশ পচা বা শুকনো হয়। সেই অংশটি কেটে বাদ দিন। এর ফলে আপনি সবজিগুলো পচে যাওয়া থেকে রক্ষা করতে পারবেন এবং এগুলো আরও বেশিদিন ধরে সুরক্ষিত রাখতে পারবেন। কাটার পরে, সবজিগুলোকে একটি অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে মুড়ে ফ্রিজারে রেখে দিন।
  • টমেটো জাতীয় জিনিস ফ্রিজে রাখলেও খুব বেশিদিন স্থায়ী হয় না। সুতরাং এগুলো পিষে পিউরি তৈরি করুন। এটি তেল দিয়ে রান্না করুন। তারপরে এটি ঠাণ্ডা হয়ে যাওয়ার পর ফ্রীজারে রাখুন।
  • বার্গার, প্যাটিস, সবুজ মটর এবং ফ্রেঞ্চ ফ্রাই জাতীয় সামগ্রী, যেগুলো আমরা প্রায়শই বাচ্চাদের জন্য সঞ্চয় করি, এগুলো বেশিদিন ধরে ভালো রাখতে ফ্রীজারে রাখুন। ফলে এগুলো বেশ কয়েক সপ্তাহের জন্য সতেজ থাকবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য