মধ্য আমেরিকার সবচেয়ে ছোট দেশ এল সালভাদরে ক্রান্তীয় ঘূর্ণিঝড় আমান্ডায় অন্তত সাত জন নিহত হয়েছেন।

ঝড়ের সঙ্গে আসা প্রবল বৃষ্টিতে নদী উপচে বন্যা দেখা দেয়, পানিতে শহরের রাস্তাগুলো তলিয়ে যায় ও ভূমিধসের ঘটনা ঘটে বলে রোববার দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মারিও দুরান জানিয়েছেন।

“আমরা দেখেছি লোকজন সাহায্য চাইছে, সরকারের কাছে অনুরোধ করছে। বিপর্যয় বেশি হওয়ায় আমরা সব জায়গায় পৌঁছতে পারিনি,” বলেন দুরান।

সালভাদরের বেসামরিক সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ জানায়, ঝড়ের সময় ঘর ধসে আট বছরের একটি বালক নিহত হয়েছে, দেয়াল ধসে আরেক ব্যক্তি মারা গেছে আর নদীতে ডুবে মারা গেছে আরেকজন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, আমান্ডা বা এর দুর্বল হয়ে পড়া অংশ এল সালভাদর, গুয়াতেমালার দক্ষিণাঞ্চল, হন্ডুরাসের পশ্চিমাঞ্চল এবং মেক্সিকোর তাবাসকো ও ভেরাক্রুজে ১০ থেকে ১৫ ইঞ্চি বৃষ্টিপাত ঘটাবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার (এনএইচসি) ।

ঝড়টির প্রভাবে ভারি বৃষ্টিপাত হবে আর তাতে ‘মধ্য আমেরিকা ও মেক্সিকোর দক্ষিণাঞ্চলে জীবনের জন্য হুমকি সৃষ্টিকারী হড়কা বান, ভূমিধস হতে পারে’ বলে সতর্ক করেছে এনএইচসি।

ক্রান্তীয় ঘূর্ণিঝড়টি দুর্বল হয়ে পড়ার পরও আগামী বেশ কয়েকদিন এর প্রভাব রয়ে যাবে বলে জানিয়েছে তারা।

এনএইচসি বলেছে, আমান্ডা ঘণ্টায় ৬৫ কিলোমিটার একটানা বাতাসের বেগ নিয়ে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া আকারে এগিয়ে যাচ্ছে এবং এর কেন্দ্রটি স্থলভাগের আরও ভিতরে সরে যেতে থাকায় ‘খুব শিগগিরই’ এটি দুর্বল হয়ে পড়বে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য