আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধাঃ একটি পরিবারকে পথে বসানোর চেষ্টায় অবশেষে মাছের সঙ্গে শত্রুতা করেছে প্রতিপক্ষরা। তারা পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে প্রায় ৯০ হাজার টাকার মাছ মেরে ফেলেছে। এমন ঘটনা গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের শ্রীকলা গ্রামে ঘটেছে।

সরেজমিনে শনিবার (৩০ মে) দুপুরে ওই গ্রামের কলিম উদ্দিনের পুকুরে মরা মাছগুলো ভাসতে দেখা গেছে। শুধু মাছই নয়, সেখানে ভেঙে ফেলা হয়েছে ঘরবাড়ি, কেটে ফেলা হয়েছে গাছপালা।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, শ্রীকলা গ্রামের মৃত তমছের আলীর ছেলে কলিম উদ্দিনের সঙ্গে প্রতিবেশী মৃত ভোলা মিয়ার ছেলে মিঠু ও আবু তালেব মিয়াগংদের দীর্ঘদিন ধরে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন সময়ে প্রতিপক্ষরা কলিম উদ্দিনের পরিবার-পরিজনকে নানাভাবে হেনস্থা করে আসছিলেন।

এর একপর্যায়ে ২৮মে রাতে কলিম উদ্দিনের পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে প্রায় ৯০ হাজার টাকা মূল্যের মাছ মেরে ফেলা হয়। এর কয়েকদিন আগেও, কলিম উদ্দিনের বসবাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও ফলদ ও বনজ প্রজাতির বেশ কিছু গাছপালা কেটেছে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটি সর্বশান্ত হয়ে পড়েছে বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

এসব তথ্য নিশ্চিত করে ক্ষতিগ্রস্ত কলিম উদ্দিন বার্তা২৪.কমকে বলেন, সাদুল্লাপুর থানায় অভিযোগ করছি। আর এই অভিযোগের পর থেকে মিঠু মিয়াগংদের অব্যাহত হুমকিতে পরিবার-পরিজন নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতা ভুগছি।

তবে এসব ঘটনা অস্বীকার করেছেন আবু তালেব মিয়া ও তার পরিবারের লোকজন। তারা বলেন, আমাদের ফাঁসাতে কলিম উদ্দিন মিথ্যা অভিযোগ করেছে।

উপজেলার জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য মফিজল হক বলেন, কলিম উদ্দিনের পুকুরের মাছ মেরে ফেলানো ও গাছপালা কাটার ঘটনা ঘটেছে। তবে কে বা কারা করেছে এ বিষয়ে আমার জানা নেই।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য