দিনাজপুর সংবাদাতাঃ কালবৈশাখী ঝড়ে দিনাজপুরে পাঁকুড় গাছটি হেলে যাওয়ায় ঘটতে পারে দুর্ঘটনা। আতঙ্কে গাছ সংলগ্ন দোকানীরা। ঝুকিপূর্ণ গাছটি কেটে ফেলার আবেদন করেও তিনবছরে সাড়া দেয়নি দিনাজপুর জেলা পরিষদ অভিযোগ ব্যবসায়ীদের।

ব্যবসায়ীরা জানান, দিনাজপুর শহরের পুলহাট মোড়ে জনতা ব্যাংকের ঠিক পূর্বে রাস্তা থেকে ৩ ফিট দুরত্বে প্রায় ৩৩ বছরের পুরনো একটি বিশাল পাঁকুড় গাছ রয়েছে। গাছটির ঠিক ১০ ফিট দুরত্বে একটি ডাক্তার চেম্বারসহ ছয়টি দোকান, খাওয়ার হোটেল একটি আর একটি বড় গোডাউন ঘর রয়েছে। গাছটি মার্কেট জুড়ে ছায়া প্রদান করলেও বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে গাছটি ধীরে ধীরে মার্কেটের পার্শ্বে হেলে পড়ছে।

তবে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া কালবৈশাখী ঝড়ে গাছটি অনেকটাই হেলে পড়েছে। এতে যেকোন সময় ঘটতে পারে দুর্ঘটনা। হতে পারে হতাহত। গাছটি কেটে ফেলতে ২০১৭ সালের জুন মাসে মার্কেটের মালিক মোস্তফা বেলাল সকলের পক্ষে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর একটি আবেদনও করেছিলেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে কোনও রকম তৎপরতা দেখা যায়নি বলে ব্যবসায়ী সাইদুর রহমান, ছাবির হোসেন জানান।

ঝুকিপূর্ণ গাছটি এক্ষুণি কেটে অপসারণ করে সামনের বিপদ থেকে মুক্তি পেতে হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন তারা।

বৃহস্পতিবার সকালে পূলহাটে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, পাকুড় গাছটি পূর্বদিকে হেলে গেছে। গাছের শিকরের মাটি উবড়ে গিয়ে গাছটি দূর্ঘটনার কবলে পড়তে আরও একটি শক্তিশালী কালবৈশাখী প্রয়োজন বলে দাবী করেন স্থানীয়রা।

দিনাজপুর পৌরসভার ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আশরাফুল আলম রমজান বলেন, পাঁকুড় গাছটি খুবই ঝুকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। যখন তখন দুর্ঘটনা ঘটতে পারে গাছটি পড়ে গিয়ে। তবে গাছটি অতিশীঘ্রই কেটে অপসারণ করে সামনের বিপদ থেকে মুক্তি দিতে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য