কুড়িগ্রামে বৌভাতের অনুষ্ঠান শেষে কনের বাড়ি ফেরার পথে ধরলা নদীতে নৌকা ডুবে চারজন নিহত হয়েছেন।

কুড়িগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মনোরঞ্জন সরকার জানান, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তারা তাদের লাশ উদ্ধার করেন।

তারা হলেন জেলার উলিপুর উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের যমুনারায় গ্রামের কেরামত উল্লার ছেলে নূর ইসলাম নূরু, কনের বাবা নূর ইসলাম, তৈয়ব আলীর স্ত্রী আমেনা বেগম ও কামরুজ্জামান নামে এক ব্যক্তি।

বুধবার বিকালে ৫টার দিকে উপজেলার বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের কলাকাটা এলাকায় ধরলা নদীতে নৌকাডুবির এ ঘটনা ঘটে।

কনের মামাত ভাই আশরাফুল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, একই উপজেলার নামানিরচর গ্রামে বর আলমগীর হোসেন বাড়িতে বৌভাতের অনুষ্ঠান ছিল। অনুষ্ঠান শেষে বুধবার বিকালে কনেপক্ষের প্রায় অর্ধশত লোক শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নৌকায় করে যমুনারায় গ্রামে বাড়ি ফিরছিলেন।

আশরাফুল বলেন, পথে কলাকাটার কাছে বৃষ্টি শুরু হয়। এ সময় নৌকায় পলিথিন টানাতে গেলে টানাটানিতে নদীর মাঝপথে নৌকা ডুবে যায়। এতে চারজন নিখোঁজ হন। অন্যরা সাঁতরে তীরে ওঠেন।

রাত হয়ে যাওয়ায় বুধবার নিখোঁজদের খুঁজে পায়নি স্বজনরা।

ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা মনোরঞ্জন বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে তাদের তিনটি ইউনিট গিয়ে উদ্ধারকাজ শুরু করে। প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টার চেষ্টায় চারজনের মরদেহ উদ্ধার করেন তারা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য