দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন এক নারীর ঝুলন্ত লাশ পাওয়া গেছে, হারপকি খাওয়ায় যাকে দুদিন আগে হাসপাতালে আনা হয় বলে চিকিৎসক জানান।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার আবু সৈয়দ জানান, বুধবার সকালে হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ডের শৌচাগারে ৩৫ বছর বয়সী এই নারীর ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়।

তাদের বাড়ি কুষ্টিয়া সদরের মাঝপাড়া গ্রামে বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়।

আবু সৈয়দ বলেন, গত সোমবার হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজ্ঞান অবস্থায় এই নারীকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। সে সময় তার রক্ত বমি হচ্ছিল। চিকিৎসায় তিনি অনেকটা সুস্থ্য হয়ে ওঠেন। কিন্তু বুধবার সকালে তার ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়।

আবু সৈয়দ আরও বলেন, ওই নারীর জ্ঞান ফেরার পর তার বাড়ি কুষ্টিয়া বলে জানান। তবে তিনি ঢাকা থেকে ট্রাকে চড়ে হাকিমপুর চলে আসেন একা।

“হাসপাতালে ভর্তির আগে ওই নারী হারপিক খেয়েছিলেন বলে জানান। তবে কেন হারপিক খেয়েছেন সে বিষয়ে কিছু বলেননি।”

হাকিমপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক আকন্দ জানান, ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য