দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর সদর উপজেলার ৮নং শংকপুর ইউনিয়নের নারায়নপুর মাঝাপাড়া গ্রামের আরমান হোসেন হত্যার ২ আসামীকে পুলিশে সোপর্দ করায় সাহসী এ কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ শংকপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইসহাক চৌধুরীকে পুরস্কৃত করেছেন দিনাজপুর জেলা পুলিশ প্রশাসন।

১৮ মে সোমবার দিনাজপুর পুলিশ সুপার কার্যালয় মিলনায়তনে দিনাজপুর সদর উপজেলার ৮নং শংকপুর ইউনিয়নের নারায়নপুর মাঝাপাড়া গ্রামের দুলাল হোসেনের পুত্র আরমান হোসেন হত্যার ২ আসামীকে পুলিশে সোপর্দ করায় সাহসী এ কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ শংকপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইসহাক চৌধুরীর হাতে পুরস্কার তুলে দেন দিনাজপুর জেলা পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন বিপিএম. পিপিএম (বার)।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপারবৃন্দ এবং দিনাজপুরের ১৩ থানার অফিসার ইনচার্জবৃন্দ। এছাড়াও পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন বিপিএম. পিপিএম (বার) ইউপি সদস্য মো. ফিরোজ আলম ও গ্রাম পুলিশ বাবলু বৈশ্যকে পুরস্কৃত করেন।

দিনাজপুর সদর উপজেলার শংকপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইসাহাক চৌধুরী বলেন, হত্যার স্বীকার আরমান হোসেন পেশায় ছিলেন একজন নির্মাণ মিস্ত্রি। সে নারায়ণপুর গ্রামের দুলাল হোসেনের ছেলে প্রতিবেশী বন্ধুদের সাথে অর্থ লেনদেনের ঘটনায় হত্যা করা হয়েছে আরমান হোসেনকে বলে অভিযোগ করেছে তার পরিবার।

পরিবারদের সাথে আলোচনা করে হত্যার পরের দিনেই দুই হত্যাকারীকে আটক করে কোতয়ালী পুলিশে সোপর্দ করায় তার এই সাহসীকতা কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ ইউপি চেয়ারম্যান ইসহাক চৌধুরীকে দিনাজপুরের পুলিশ প্রশাসন পুরস্কৃত করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য