সংবাদ সম্মেলনঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট পৌর মেয়র আব্দুষ সাত্তার মিলনের উপর সন্ত্রাসী হামলায় গত বুধবার সকালে মেয়র আবদুস সাত্তার মিলন এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। তিনি উপস্থিত সাংবাদিকগনের সামনে তার অভিযোগগুলি বলেন। তিনি বলেন,পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে ইফতার বিতরনের সময় আওয়ামী যুবলীগের হাতে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হই ও ঘোড়াঘাট অনলাইন প্রেসক্লাবের সাধারণ-সম্পাদক ইফতেখার আহমেদ বাবু।

তিনি বলেন, বিকাল ৪ টার পরে উপজেলার সদরে অবস্থিত ওসমানপুরে দিনাজপুর-৬ এর মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব মোঃ শিবলী সাদিক এমপি মহোদয়ের নির্দেশে পবিত্র মাহে রমজানের ইফতার বিতরন চলাকালীন সময়ে উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক নান্নু দলবল নিয়ে হঠাৎ করেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে পিস্তল ধারালো চাকু সহ আমাকে ও ইফতেখার আহমেদ বাবুর উপর হামলা চালায এবং মারপিট করে রক্তাক্ত করে। পৌর মেয়র বলেন, কোন জনপ্রনিধির গায়ে হাত তোলা মানে সরকারের গায়ে হাত তোলা কারণ জনপ্রতিনিধিরা সরকারেরই অংশ।

তিনি আরও বলেন আমি মাননীয় এমপি মহোদয়ের নির্দেশে পবিত্র মাহে রমজানের ইফতার বিতরন করতে গিয়েছিলাম। এমপি মহোদয়ের এই মহতি উদ্যোগগুলো প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্যই এই সন্ত্রাসী হামলা। এমপি মহোদয় ঘোড়াঘাট থানার সামনে পৌর মেয়রকে সাথে নিয়ে উপস্থিত জনতার সামনে বলেন ,সন্ত্রাসীদের পরিচয় সন্ত্রাসী, সে যে দলেরই হোক না কেন তাদের অবশ্যই দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেয়া হবে। দরকার হলে তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হবে. কারণ সন্ত্রাসীদের কোন দল হতে পারে না।

তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করে বলেন, এই সমস্ত সন্ত্রাসীরা আর কার জমি দখল করে, চাঁদাবাজি করে, ছিনতাই করে, সেগুলোর অভিযোগ এম,পি সহ, পুলিশপ্রশাসন, জেলা যুবলীগ বরাবর প্রেরণ করার জন্য তিনি জানান। শিবলী সাদিক এম,পি জানান, আমি যথাযথ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে এদেরকে দল থেকে বহিষ্কার করার ব্যবস্থা নেবো।

ঘোড়াঘাট পৌর মেয়র আবদুস সাত্তার মিলনের উপর হামলার ঘটনায় মেয়র বাদী হয়ে ৮ জনসহ অঞ্জাত ১২জনকে আসামি করে ওই দিবাগত রাতে মামলা দায়ের করেছেন। ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ তাৎক্ষনিক হামলাকারীদের ৪ জনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃৃতরা হলেন উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর আলম, পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক ওয়ারকার আহম্মেদ নান্নু, মামুন, সোহেল প্রমুখ।

এদিকে ঘোড়াঘাট পৌর মেয়রের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন মানব বন্ধন ও কর্ম বিরতি পালন করেছে।

বুধবার দুপুরে ঘোড়াঘাট পৌরসভার সামনে এই মানব বন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। এ সময় বক্তব্য দেন, পৌর প্যানেল মেয়র আবদুল কাদের ও পৌর সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক ফজলে রাব্বি সরকার। বক্তারা বলেন,করোনা ভাইরাস প্রাদৃর্ভাবের সময় প্রধানমন্ত্রি ও স্থানীয় দিনাজপুর ৬আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক এর দিক নির্দেশনায় ও সার্বিক সহযোগীতায় ঘোড়াঘাট পৌরসভা ত্রান সামগ্রী বিতরন করে আসছে।

এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার বেলা ৪টায় ঘোড়াঘাট পের মেয়র আঃ সাত্তার মিলন ও ইফতেখার বাবু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে ত্রান সামগ্রী ও ইফতার সামগ্রী বিতরন করতে গেলে উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক জাহাঙ্হীর আলমের নেতৃত্বে যুবলীগ নেতা মাসুদ,নান্নুসহ কয়েকজন বিপদগামী যুবলীগ নেতা তারা মেয়র ও বাবুর উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এতে মেয়র ও বাবু গুরুতর আহত হয়। মানব বন্ধনে এসোসিয়নের নেতারা গ্রেফতারকৃতদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবী করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য