রংপুরের মিঠাপুকুরে বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণের বিরোধের জেরে বড় ভাই মশিয়ার রহমানের কুঁড়ালের আঘাতে খুন হয়েছেন ছোট ভাই সাইফুল ইসলাম। এসময় তাদের মা বোনসহ আহত হয়েছেন সাতজন। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার কাফ্রিখাল ইউনিয়নের যাদবপুর গ্রামে।

এ ঘটনায় বুধবার (১৩ মে) নিহতের স্ত্রী নিলুফার ইয়াসমিন বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কাফ্রিখাল ইউনিয়নের যাদবপুর গ্রামের মৃত আব্দুল বারির দুই ছেলে মশিয়ার রহমান ও সাইফুল ইসলাম। তাদের দুই ভাইয়ের মধ্যে বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। ঘটনার দিন মঙ্গলবার (১২ মে) দুপুরে সীমানা ভাগাভাগি নিয়ে বড় ভাই মশিয়ার রহমান ও ছোট ভাই সাইফুলের মধ্যে প্রথমে কথা কাটাকাটি শুরু হয়।

এক পর্যায়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটলে বড় ভাই মশিয়ার রহমান উত্তেজিত হয়ে কুঁড়াল দিয়ে সাইফুল ইসলামের মাথায় আঘাত করেন। এতে সে গুরুতর আহত হয়। তাকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোররাতে মারা যায় সাইফুল ইসলাম। এ ছাড়াও মশিয়ার তার মা সালেহা বেগমের গলায়, ছোট বোন মল্লিকা বেগমকে একই কুঁড়াল দিয়ে আঘাত করে আহত করেন। এতে ৭জন আহত হন।

এ ঘটনায় মিঠাপুকুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাফর আলী বিশ্বাস বলেন, নিহত সাইফুলের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী নিলুফার ইয়াসমিন বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। আসামীকে গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে বলেও জানান ওসি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য