দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর জানা গেল যুবক রোগী ভুয়ার ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর দিয়ে পরীক্ষার নমুনা দিয়েছিল; ফলে তাকে খুঁজে পাচ্ছে না স্বাস্থ্য বিভাগ।

গতকাল পরীক্ষায় এই যুবকের কোভিড-১৯ রোগ শনাক্ত হয়। এরপর খোঁজ করতে গিয়ে দেখে নমুনা দেওয়ার সময় দেওয়া ঠিকানাটি তার নয়।

ওই যুবক ভুল ঠিকানার পাশাপাশি ওই এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক চিকিৎসকের মোবাইল নম্বর নাম তার নম্বর হিসেবে উল্লেখ করেছিলেন।

বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. মো. আব্দুল মোকাদ্দেস বলেন, গত রোববার দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নমুনা দিয়ে যায় এক যুবক।

“নমুনা দেওয়ার সময় তার নাম, বয়স ও ঠিকানা লেখা হয়। বয়স ১৮ উল্লেখ করে দিনাজপুরের বিরল উপজেলার ঠিকানা দেয় ওই যুবক।”

তিনি জানান, নমুনা দেওয়ার সময় যে মোবাইল নম্বর উল্লেখ করেছেন, সেই নম্বরে ফোন করে জানা যায় সেই নম্বরটিও এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক চিকিৎসকের নম্বর।

“ওই চিকিৎসকও ওই যুবককে চেনেন না।”

এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওই যুবক কীভাবে নমুনা দিয়ে গেল, আর তার নমুনা কীভাবে সংগ্রহ করা হল-সেসব খতিয়ে দেখে ওই রোগীর সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানান বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. মো. আব্দুল মোকাদ্দেস।

এর আগেও অন্য জেলায় ভুল ঠিকানা দিয়ে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা দেওয়ার ঘটনা ঘটতে দেখা গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য