মোঃ ইউসুফ আলী, আটোয়ারী পঞ্চগড়ঃ করোনা দুর্যোগে আটোয়ারী উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের একান্ত সহযোগিতায় ঠিকানা খুঁজে পাওয়া অসহায় বৃদ্ধা ইশারন বেগম (৯০) কে ঘিরে সংবাদ প্রকাশের পর তাকে সাহায্যের জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন অনেকেই।

উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের পাখরতলা গ্রামের ছোট মেয়ে আজিমা বেগমের বাড়িতে ঠাঁই পাওয়া এই অসহায় বৃদ্ধার বাড়ি নির্মানের জন্য ৩ শতক জমি দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়ালো প্রতিবেশী যুবক কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী রবিউল ইসলাম সুর্য।

এদিকে উপজেলা প্রশাসন এবং পুলিশের পক্ষে খাদ্য সহায়তা সহ সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখা হচ্ছে এ বৃদ্ধার। ইতোমধ্যে পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন বৃদ্ধাকে বাড়ি নির্মানের জন্য নগদ ২০ হাজার টাকা এবং দুই বান্ডিল ঢেউটিন প্রদান করেছেন।

এদিকে প্রাথমিক শিক্ষা, রাজশাহী বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিভাগীয় উপ-পরিচালক অধ্যাপক আব্দুল হাই চৌধুরী ইশারন বেগমের চিকিৎসার জন্য ১০ হাজার টাকা দিয়েছেন।

উল্লেখ্য যে, সম্প্রতি ইউনিয়ন পরিষদে ত্রাণ চাইতে গিয়ে পা ভেঙ্গে পড়ে থাকেন মির্জাপুর এলাকার ইশারন বেগম(৯০) নামে জনৈক এই বৃদ্ধা। মূলত: তার পরিবার ঘরবাড়ি থেকেও তিনি অসহায়ত্ব মানবেতর জীবন যাপন করতো।

সৎ ছেলেরা তাকে দেখাশোনা করতো না করে , খোজখবরও রাখতো না। খবর পেয়ে আটোয়ারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন সুলতানা এবং পঞ্চগড়ের পুলিশ সুপার মো: ইউসুফ আলী দ্রুত উদ্যোগ নিয়ে অসহায় ইশারন বেগমকে ছোটমেয়ের বাড়িতে তুলে দেন এবং তার সুচিকিৎসা সহ বাসস্থানের দায়িত্ব নেন। এলাকাবাসী বলছেন জীবনের শেষপ্রান্তে এসে ইশারন (৯০) এখন দেখছে সুখের স্বপ্ন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য