দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর নবাবগঞ্জে করোনাভাইরাস (কোভিট-১৯) আক্রান্তদের মধ্যে মোঃ এমানুর রহমান (২১) নামক এক যুবক সম্পূর্ণ সুস্থ্য হয়েছেন। তিনি উপজেলার গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের শালদীঘি গুচ্ছ গ্রামের মোঃ নওয়াব আলীর ছেলে। তার শরীরে গত ১৪ এপ্রিল করোনা পজেটিভ সনাক্ত হয়েছিল।

মঙ্গলবার (৫-মে) বিকাল সাড়ে ৪টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ নাজমুন নাহার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আল মামুন, উপজেলা স্বাস্থ্য (ভারপ্রাপ্ত) পঃ পঃ কর্মকর্তা ডা. মোঃ শাহজাহান আলী , উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ রেফাউল আজম সহ অন্যান্য কর্মকর্তারা করোনাজয়ী ঐ যুবকের বাড়িতে গিয়ে তাকে অভিনন্দন জানান।

এসময় করোনা থেকে সুস্থ্য হওয়া এমানুরের সুস্থ্যতার সার্টিফিকেট, পুষ্টিকর খাদ্য ও ইফতার সামগ্রী ও পোশাক উপহার দেয়া হয়।

করোনা থেকে মুক্তি পাওয়া এমানুর রহমান বলেন, ‘প্রায় ২০ দিনের বেশি সময় ধরে নিজের সাথে যুদ্ধ করেছি। সরকারি বিধিবিধান মেনে চলেছি। প্রতিনিয়তই ইউএনও স্যার, ডাক্তার স্যার আমার খোঁজ খবর নিয়েছেন। তাদের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা গ্রহন করে আজ আমি সম্পুর্ন সুস্থ হয়েছি। তবে আপাতত আমি বাড়িতেই থাকব।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য পঃপঃ (ভারপ্রাপ্ত) কর্মকর্তা মোঃ শাহজান আলী বলেন, ‘নবাবগঞ্জে গত ১৪ এপ্রিল একদিনে ৩জন করোনাভাইরাসে সনাক্ত হয়েছিল। তাদের মধ্যে আজকে একজনকে আমরা ছাড়পত্র দিয়েছি। ১৪দিন হোম আইসোলেশনে থাকার পর আমরা কয়েকবার তার নমুনা সংগ্রহ করার নিশ্চিত হই তিনি করোনা (কোভিট-১৯) মুক্ত হয়েছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও)মোছাঃ নাজমুন নাহার বলেন, উপজেলায় একদিনে ৩ ব্যক্তি করোনায় সনাক্ত হয়। আমরা প্রতিনিয়তই তাদের খোঁজ খবর রাখি। আজকে একজন করোনা রোগীকে আমরা সুস্থ্যতার ছাড়পত্র দিয়েছি। সেই সাথে তাকে করোনা যুদ্ধে জয়ী হবার কারণে তাদের বাড়িতে গিয়ে অভিনন্দন জানিয়েছি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য