উত্তর এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সীমান্তবর্তী অস্ত্র-মুক্ত এলাকায় দুই দেশের মধ্যে গুলি বিনিময় হয়েছে। সৌলের সামরিক কর্মকর্তারা বলছেন, চিওরন শহরের কাছে সীমান্তে উত্তর কোরিয়ার দিক থেকে আসা গুলি দক্ষিণ কোরিয়ার সেনা চৌকিতে আঘাত হানে।

এর জবাবে দক্ষিণ কোরিয়াও পাল্টা গুলি চালায়। তবে এই ঘটনায় দু’পক্ষের মধ্যে কেউ হতাহত হয়নি বলেই জানা যাচ্ছে। উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যবর্তী সীমান্তটিতে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি সামরিক প্রস্তুতি রয়েছে। এবং সেখানে এই ধরনের গুলি বিনিময়ের ঘটনা বেশ বিরল।

সর্বশেষ এরকম গুলি বিনিময় হয়েছিল ২০১৭ সালে। তবে উত্তর কোরিয়া হঠাৎ করেই কেন এই হামলা চালিয়েছে তার কারণ তাৎক্ষণিকভাবে জানান যায়নি। দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক কর্মকর্তারা বলছেন, উত্তর কোরিয়া সীমান্তে সৈন্য সংখ্যা বৃদ্ধি করছে এমন কোন লক্ষণও দেখা যাচ্ছে না।

সৌল থেকে বিবিসি সংবাদদাতা লরা বিকার জানাচ্ছেন, যে সময় এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটলো সেটা লক্ষ্য করার মতো। প্রায় ২১ দিন পর্দার অন্তরালে থাকার পর উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-আন আবার জনসমক্ষে ফিরে এসেছেন। আর তার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই এই ঘটনা ঘটলো।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য