মহামারি করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকাকালীন শিক্ষার্থীদের ৬ মাসের মেস ভাড়া মওকুফের দাবি জানিয়েছে জাতীয় ছাত্র সমাজ। দাবি বাস্তবায়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সংগঠনটির নেতারা।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে রংপুর নগরীর সুমি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সারাদেশের শিক্ষার্থীদের পক্ষে এ দাবি তুলে ধরেন জাতীয় ছাত্র সমাজের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. আল মামুন।

লিখিত বক্তেব্য জাতীয় ছাত্র সমাজের সাধারণ সম্পাদক বলেন, দেশের বেশির ভাব শিক্ষার্থী নিম্মবিত্ত পরিবারের সন্তান । তাদের অনেকের অভিভাবক কৃষক, দিনমজুর, শ্রমিক, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষক , কর্মকর্তা-কর্মচারী ও খেটে খাওয়া দিনমজুর ।

একারণে দেশের বেশির ভাগ শিক্ষার্থী পড়ালেখার পাশাপাশি প্রাইভেট (টিউশনি) পড়ানো ও কোচিং করান। কিন্তু বর্তমানে করোনা পরিস্থিতিতে সবকিছু বন্ধ থাকায় ভাড়ার চাপে বেকায়দায় পড়েছেন মেসে থাকা শিক্ষার্থীরা।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলাে বন্ধ হওয়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের উপার্জনের পথও বন্ধ হয়ে গেছে। এ কারণে অনেকেই নিজ নিজ স্থানে লকডাউন হয়ে আছে। কিন্তু তাদের মেস ও বাসা ভাড়ার জন্য মালিকরা অমানবিক চাপ প্রয়োগ করছে। নিদারুণ এই বাস্তবতায় শিক্ষার্থীরা উদ্বিগ্ন। তাদের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যহত হচ্ছে।

এ সময় সরকারি নির্দেশনায় বিশ্ববিদ্যালয়সহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ চলাকালীন শিক্ষার্থীদের কমপক্ষে ৬ মাসের মেস/বাসা ভাড়া মওকুফ করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি বিনয় অনুরোধ সহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সদয় হস্তক্ষেপের আহ্বান জানানো হয়। অন্যথায় শিক্ষার্থীরা বড় ধরণের বিপদের সম্মুখীন হবে বলে আশংকা প্রকাশ করেন জাতীয় ছাত্র সমাজ।

সংবাদ সম্মেলনে রংপুর জেলা ও মহানগর জাতীয় ছাত্র সমাজের নেতারা ছাড়াও বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, কারমাইকেল কলেজ ও রংপুর সরকারি কলেজ শাখা কমিটির ও নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য