চীনের উহান শহরে আবির্ভূত হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী নতুন করোনাভাইরাসের জন্য যুক্তরাষ্ট্র বেইজিংয়ের কাছে ক্ষতিপূরণ চাইতে পারে বলে প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ইঙ্গিত দিয়েছেন।

সোমবার হোয়াইট হাউসের ব্রিফিংয়ে তিনি এ ইঙ্গিত দেন বলে এনডিটিভিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

“আমরা চীনের ওপর সন্তুষ্ট নই। পুরো অবস্থা নিয়েই আমরা সন্তুষ্ট নই, কেননা আমাদের বিশ্বাস এটা (ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব) চাইলে উৎসেই থামানো যেতো। যদি তাড়াতাড়ি থামানো যেতো, তাহলে এটা সারাবিশ্বে ছড়াতো না।

“তাদের (চীন) জবাবদিহি করার অনেক উপায় আছে। আমরা যে এ বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখছি তা সম্ভবত আপনারা জানেন,” বলেছেন ট্রাম্প।

সম্প্রতি জার্মানির এক দৈনিক তাদের সম্পাদকীয়তে কোভিড-১৯ এর কারণে জার্মানির যে অর্থনৈতিক ক্ষতি হয়েছে তা পূরণে চীনকে ১৬৫ বিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রও এ ধরনের কিছু চিন্তা করছে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে রিপাবলিকান এ প্রেসিডেন্ট বলেন, “আমরা এর থেকেও সহজ কিছু করতে পারি।”

“জার্মানি এক ভাবে দেখছে, আমরা এক ভাবে দেখছি। জার্মানি যা বলছে, আমরা এর চেয়েও অনেক অনেক বেশি অর্থের কথা বলছি। আমরা এখনো চূড়ান্ত করিনি। তবে এটা বেশ বড় অঙ্কই হবে।

“এ ভাইরাস পুরো বিশ্বের ক্ষতি করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের যেমন করেছে, বিশ্বেরও করেছে,” বলেছেন ট্রাম্প।

ডিসেম্বরের শেষদিকে চীনের উহান থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া নতুন করোনাভাইরাস এখন পর্যন্ত কেবল যুক্তরাষ্ট্রেরই ৫৬ হাজার মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। দেশটির অর্থনীতির বিপুল পরিমাণ ক্ষতি করেছে, চাকরিহারা করেছে প্রায় কোটি লোককে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য