নিয়ম ভেঙে করোনা মহামারির মধ্যে মাদ্রাসায় গিয়ে এক সঙ্গে খেতে বসায় শাস্তির মুখোমুখি হলেন মালয়েশিয়ার মন্ত্রী।

তাকে জরিমানা, অনাদায়ে এক মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন বিচারক।

স্ট্রেইটস টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, সামাজিক দূরত্বের নিয়ম ভেঙে ১৮ এপ্রিল লেংগংয়ের একটি মাদ্রাসায় গিয়ে খাবার খান মালয়েশিয়ার উপস্বাস্থ্যমন্ত্রী নূর আজমি গাজালি। সেখানে মন্ত্রীসহ ১৪ জন এক সঙ্গে খাবার খান।

পরে সেই ছবি ফেসবুকে আপলোড করেন মালয়েশিয়ার উপস্বাস্থ্যমন্ত্রী। এরপর হুলু পেরেক জেলার ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ওই ছবিতে থাকা ১৫ জনকে শাস্তি দেন। তাদের সবাইকে এক হাজার রিঙ্গিত করে জরিমানা, অনাদায়ে এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

কোভিড-১৯ প্রতিরোধের প্রস্তুতি দেখতে হুলু পেরেক জেলার এক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে গিয়েছিলেন মন্ত্রী। সেখান থেকে নামাজ পড়তে লেংগংয়ের এক মাদ্রাসায় যান। পরে ওই মাদ্রাসায় একসঙ্গে খেতে বসেন।

এ ঘটনায় নূর আজমি গাজালি নিজের দোষ স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, ‘যা ঘটেছে সেজন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। এমন ভুল আবার না করার চেষ্টা করবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মালয়েশিয়ার আইন মেনে চলব। আমি আমার দেশের মানুষের জন্য সর্বোত্তম স্বাস্থ্য ব্যবস্থা করবো।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য