করোনা মহামারির মধ্যেই এই গ্রীষ্মে আফ্রিকা থেকে ধেয়ে আসা পঙ্গপাল আক্রমণ চালাতে পারে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে। কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এমনটি জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দু।

দ্য হিন্দুর প্রতিবেদনে বলা হয়, এমন পরিস্থিতিতে দেশগুলোর সরকারকে করোনা মহামারির পাশপাশি পঙ্গপালের বিরুদ্ধেও লড়াই করতে হবে। আফ্রিকা থেকে একদল পঙ্গপাল গতিপথে মরু অঞ্চলের আরেকদলের সঙ্গে যুক্ত হয়ে হানা দিচ্ছে। এদের একটি ঝাঁক ইয়েমেন, বাহরাইন, কুয়েত, কাতার, ইরান, সৌদি আরব এবং পাকিস্তান হয়ে ভারতে হানা দিচ্ছে। এরা ভারতের পাঞ্জাব, হরিয়ানাসহ আরও কয়েকটি এলাকায় ঢুকছে। অন্যদলটি ভারত মহাসাগর অতিক্রম করে সরাসরি ভারত উপদ্বীপের কৃষিজমিতে আক্রমণ করতে পারে । এরপরই পঙ্গপালের দল উড়ে যাবে বাংলাদেশের দিকে।

জানা গেছে, এক বর্গ কিলোমিটার এলাকায় প্রায় ৪ কোটি পঙ্গপাল আক্রমণ করতে পারে। পঙ্গপাল প্রায় ৩৫ হাজার মানুষের খাবার একদিনেই খেয়ে ফেলতে পারে।

গত মঙ্গলবার জাতিসংঘের নিরাপাত্তা কাউন্সিলকে এক ব্রিফিংয়ে জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির নির্বাহী পরিচালক ডেভিড বেসলি হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন যে, করোনা ক্ষুধার্ত মহামারীতে পরিণত হতে পারে। এছাড়া জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) পক্ষ থেকে সতর্ক করে বলা হয়েছে, মরুর পঙ্গপাল যারা এ বসন্তে পূর্ব আফ্রিকা, ইয়েমেন ও দক্ষিণ ইরানে হানা দিয়েছে। আফ্রো-এশীয় অঞ্চলের খাদ্য নিরাপত্তার জন্যও তারা বড় হুমকি হয়ে উঠতে পারে।

আফ্রিকার কয়েকটি দেশের পর পাকিস্তান এবং সর্বশেষ ভারতে আক্রমণ চালানোর পর বাংলাদেশেও পঙ্গপালের আক্রমণ হতে পারে, এমন আশংকার কথা জানিয়েছিল কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরও ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য