দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের বিরলে ত্রাণের চাউলসহ আনুষাঙ্গিক জিনিসপত্র পাইয়ে দেয়ার নামে ঘুষ গ্রহণের সময় উত্তম-মধ্যম দিয়ে এক ইউপি সদস্যকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে এলাকাবাসী।

গত ২৩ এপ্রিল রাতে বিরল উপজেলার ৭ নং বিজোড়া ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের ভবানীপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

গ্রেফতার হওয়া ইউপি সদস্যের নাম- আমিনুল ইসলাম আতর । তিনি বিরল উপজেলার ৭ নং বিজোড়া ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের সদস্য এবং ভবানীপুর গ্রামের রুস্তম আলীর ছেলে।

এই ঘটনায় ভবানীপুর গ্রামের হামিদুর রহমানের ছেলে আল মামুন বাদী হয়ে মামলা হায়ের করেছেন।

বাদী মোঃ আল মামুন মামলায় উল্লেখ করেছেন, করোনা ভাইরাসের কারণে মানুসকে ঘরে রাখতে সরকার ত্রাণ বিতরণ করছেন। আর নেই ত্রাণের চাউলসহ আনুষাঙ্গিক জিনিসপত্র পাইয়ে দেয়ার নামে ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলাম আতর ১২০ টাকা থেকে ৩০০ টাকা করে ঘুষ গ্রহণ করছিলেন।

এলাকাবাসী এজাহারে উল্লেখ করা ৭ জন সহ আরো অনেকের নিকট এভাবে টাকা আদায়ের বিষয়ে জানতে চাইলে কোন তিনি কোন সদুত্তর তিনি দিতে পারেননি। এ সময় উত্তেজিত জনতা উত্তম মধ্যম দিয়ে বিরল থানা পুলিশকে সংবাদ দেয়া ।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলাম আতরকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। শুক্রবার সকালে আল মামুন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাসিম হাবিব বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলাম আতর কে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য