দিনাজপুর সংবাদাতাঃ প্রানঘাতি করোনা এখন সারাবিশ্বে এক আতংকের নাম,দিন দিন বেড়েই চলেছে এর বিস্তার। ঝুকি এড়াতে বিভিন্ন পেশার মানুষ ঘর বন্দি হলেও, ঝুঁকি নিয়েই কাজ করতে হচ্ছে স্বাস্থ্য কর্মীদের। এর ব্যতিক্রম হয়নি দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতেও।
প্রতিদিন ফুলবাড়ীসহ আশেপাশের এলাকা থেকে সেবা নিতে আসা রোগীদের নিয়মিত সেবা দিয়ে যাচ্ছেন ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের স্বাস্থ্য কর্মীরা।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিতে পপ কর্মকর্তা ও ডেন্টাল সার্জনসহ ১০ জন ডাক্তার রয়েছে। এর মধ্যে ৮জন ডাক্তার রোষ্টার অনুযায়ী জরুরী সেবায় দায়িত্ব পালন করছেন। এদিকে স্বাস্থকর্মীদের সুরক্ষার জন্য কিছু সংখ্যক পিপিই(পার্সোনাল প্রটেকশন) এর ব্যবস্থা কোনভাবে করতে পারলেও এন-৯৫মার্কসের ব্যবস্থা হয়নি। ফলে অনেকটা ঝুঁকি নিয়েই প্রতিনিয়ত রোগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন এই স্বাস্থ কর্মিরা।

৫০ শয্যা বিশিষ্ট এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রটিতে বর্তমানে করোনা রোগীদের জন্যও প্রস্তুত করা হয়েছে ৫ শয্যা বিশিষ্ট আইসোলেশন ওয়ার্ড। এদিকে হাসপাতালের জরুরী বিভাগ সাধারণ রোগীদের সেবা অব্যাহত রেখেছে। তুলনা মুলকভাবে কিছুটা রোগী কম থাকলেও নিয়মিত রোগীদের যথেষ্ট অন্তরিকতার সাথে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন এখানকার স্বাস্থ্য কর্মীরা।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ হাসানুল হোসেন এর সাথে কথা বললে তিনি জানান,করোনার এই কঠিন পরিস্থিতিতেও আমরা যথাযথ ভাবে রোগিদের সেবা অব্যাহত রেখেছি। যদিওবা করোনা আতংকে বর্তমানে রোগীর উপস্থিতি তুলনামুলক কম। কিন্তু যারা সেবা নিতে আসছেন তাদের আমরা আন্তরিকতার সাথে সেবা প্রদান করছি।

তিনি আরো জানান, ফুলবাড়ী উপজেলায় এপর্যন্ত ২০জনের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছে এর মধ্যে ১৬জনের পরীক্ষা সম্পন্ন হওয়ার রিপর্ট পাওয়া গেছে।এর মধ্যে একজনের কোভিট-১৯ পজেটিভ পাওয়া গেছে তাকে অইসোলেশনে রাখা হয়েছে এবং বাকী ১৫জনের নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে। স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে আমরা ওই পজেটিভ রোগীর নিয়মিত খোঁজ খবর রাখছি। তিনি এখন অনেকটা ভালো রয়েছে। আশাকরি তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে যাবেন।

এই পর্যন্ত ফুলবাড়ীতে মোট ৮১৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে এর মধ্যে ১০৯ জন হোম কোয়ারেইন্টান থেকে অব্যাহতি পেয়েছে,প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৪৯ জন এবং আইসোলেসনে রয়েছে একজন সেইসাথে ২৩এপ্রিল বৃহস্পিতিবার নতুন করে ৪জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য