দিনাজপুর সংবাদাতাঃ সরকারের নতুন সময়সীমা অনুযায়ী সকাল ১০টায় ব্যাংকিং শুরু। সেই কাকডাকা ভোর থেকে পৌর শহরের পীরগঞ্জ রোড়স্থ সোনালী ব্যাংকের সিঁড়ি থেকে নিচের রাস্তায় লম্বা লাইন।

সোমবার ভোরে সোনালী ব্যাংকে গিয়ে দেখা যায়,করোনা – সতর্কতায় দূরত্ব বজায় রেখে দাঁড়াননি কেউ। মানুষ গা ঘেঁষাঘেঁষি করেই টাকা উত্তোলন ও জমা দেওয়ার জন্য।

সকাল ১০ টায় ব্যাংকিং আওয়ার শুরু হলে ব্যাংকের লোকজন ও বীরগঞ্জ থানা পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে সতর্কতার সঙ্গে কমপক্ষে তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে লাইনে দাঁড়ানোর জন্য বারবার ঘোষণা দিচ্ছে। তবু ভিড়ের মধ্যে সে কথা মাথায় আসছে না।

দোতলার ব্যাংকে প্রবেশের রাস্তা থেকে সিঁড়ি বেয়ে নিচতলার মার্কেট ও সড়ক পর্যন্ত দীর্ঘ লাইন। সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত এমনই চিত্র দেখা গেছে শহরের কৃষি,রুপালী ও সোনালী ব্যাংকের শাখাগুলোতে।

বীরগঞ্জ সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার সাখাওয়াদ হোসেন (সুমন) বলেন, মূলত সরকারি চাকরিজীবীরা বেতনের টাকা তুলতে ভিড় করছেন বেশি। ব্যাংকে ভিড় ও লেনদেন আগের থেকে বেশি। মাত্র তিন ঘণ্টা লেনদেন থাকায় ব্যাংকের লেনদেন শুরু হওয়ার আগেই অনেক গ্রাহক ব্যাংকের গেইটে দাঁড়ায়ে যান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য