দিনাজপুর সংবাদাতাঃ করোনা ভাইরাসের অজুহাতে দিনাজপুরের হিলিতে বেড়েছে আদা, রসুন, পেঁয়াজ ও শুকনো মরিচের দাম। হঠাৎ দাম বেড়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন সাধারণ ক্রেতারা।

হিলি বাজারের খুচরা বিক্রেতা মিঠু মিয়া জানান, প্রকারভেদে পাইকারী বাজারে আদার দাম ছিল প্রতিকেজি ১৪০ টাকা, এক সপ্তাহের ব্যবধানে বেড়ে এখন ২০০ টাকা। রসুন ছিল ছিল প্রতিকেজি ৬০ টাকা তা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকায়। পেঁয়াজের দাম ছিল প্রতিকেজি ৪০ টাকা তা বেড়ে এখন বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে। এছাড়াও শুকনো মরিচ ছিল ২০০ টাকা তা বেড়ে হয়েছে ২৫০ টাকায়।

আল-আমিন নামে একজন ক্রেতা জানান, গত সপ্তাহেও আদা, রসুন, পেঁয়াজ শুকনো মরিচের দাম নাগালের মধ্যেই ছিল। হঠাৎ করে করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে এসব পণ্যের দাম বেড়ে গেছে। হিসেব করে বাজারে যে পরিমাণ টাকা এনেছি তালিকা মোতাবেক বাজার খরচ পুরণ করা সম্ভব হচ্ছে না।

বাজার করতে আসা মিনহাজ নামে একজন রিক্সা চালক জানান, করোনা ভাইরাসের কারনে আগের মত আর রিক্সায় কেউ উঠেনা। যার ফলে আয় রোজগার অনেকটা কমে গেছে। আগে যেখানে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা প্রতিদিন আয় হতো কিন্তু এখন ৫০ থেকে ১০০ টাকা আয় হচ্ছেনা। এদিকে বাজারে প্রতিদিন জিনিস পত্রের দাম বেড়ে যাচ্ছে। ফলে আমাদের মতো গরীব মানুষের জন্য বেঁচে থাকায় কষ্ঠ হয়ে যাচ্ছে।

হিলি স্থলবন্দরের পাইকারী ব্যবসায়ী ফেরদৌস রহমান জানান, করোনা ভাইরাসের কারণে বিভিন্ন জেলায় লকডাউন ঘোষনা করার পর এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। যেসব এলাকা থেকে এসব পণ্য আমদানি করা হতো-সেসব এলাকার কৃষকরা পণ্য বাজারজাত করতে পারছেনা। আর এ কারণেই আদা, রসুন, পেঁয়াজ ও শুকনো মরিচের দাম কিছুটা বেড়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য