কুড়িগ্রামের রাজারহাটে সদ্দি-জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ৮মাসের কন্যা সন্তানের মৃত্যু হওয়ায় ২ বাড়ী লকডাউন করে দিয়েছে প্রশাসন। ঘটনাটি ঘটেছে ১৬এপ্রিল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২ঘটিকার দিকে।
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ঘড়িয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের পশ্চিম দেবত্তর পগলার দরগা গ্রামের হবিবর হোসেনের নাতনি আয়শা খাতুন(৮মাস) জ্বর ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হয়। ঘটনারদিন গত ১৬এপ্রিল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে তার নানার বাড়িতে আয়শা খাতুন মারা যায়। আয়শা খাতুন সোহেল মিয়ার কন্যা বলে জানা যায়।

খবর পেয়ে রাজারহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল টিম ও রাজারহাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌচ্ছে। সেখানে বিস্তারিত জানার পর রাতেই মৃত আয়শা খাতুন ও তার নানী আলিখা বেগম(৫৫)এর নমূনা সংগ্রহ করে। রাজারহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডাঃ মাশরুহুল হক জানান, ২০দিন আগে তার মামা নারায়নগঞ্জ থেকে বাড়ীতে এসেছে। সে অসুস্থ ছিল না।

শিশু আয়শা বেশ কিছুদিন ধরে সদ্দি-জ্বরে ভূগছে। কিন্তু ধারনা করা হচ্ছে, শিশুটি মারা যাওয়ার আগে খাবার শ্বাসনালীতে গিয়ে শ্বাস বন্ধ হতে পারে। এদিকে করোনা উপসর্গ থাকায় হবিবর মিয়া ও তার প্রতিবেশী আঃ সালামের বাড়ী লকডাউন করে দেয় রাজারহাট থানা পুলিশ। ১৭এপ্রিল শুক্রবার নমূনা পরীক্ষার জন্য কুড়িগ্রাম সিভিল সার্জন অফিসে জমা দেয়া হয় বলে হাসপাতালের ইপিআই টেকনিশিয়ান কাজল বোস জানান। বিষয়টি রাজারহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্েরর স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ শাহীনুর রহমান সরদার বলেন, ওই শিশু করোনা ভাইরাসে মারা যায়নি। তারপরও তার ও তার নানীর নমূনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য