Jewel-1 copyআজহারুল আজাদ জুয়েল, দিনাজপুরঃ প্রভাতী গান, নৃত্য ও আবৃত্তি পরিবেশন এবং দিনব্যাপী মেলা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিনাজপুরে পালিত হলো বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৩ তম জন্ম জয়ন্তী। দিনাজপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমী এবং জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ যৌথভাবে এই অনুষ্ঠান মালার আয়োজন করে।

বৃহস্পতিবার শিল্পকলা একাডেমী প্রাঙ্গনে আয়োজিত প্রভাতী গানের অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রভক্ত শিল্পীদের কন্ঠে সম্মিলিত কন্ঠে পরিবেশিত হয় রবীন্দ্রনাথের গান ‘পুর্ব গগন রাগে/ তুমি যে সুরের আগুন জালিয়ে দিলে মন প্রাণে/ গ্রাম ছাড়া ঐ রাঙ্গামাটির পথ/ হে নতুন দেখা দিক আর বার ছন্দেরও প্রথম শুভক্ষণ’ ইত্যাদি গান। একক কন্ঠে শিল্পী আবু সাঈদ পরিবেশন করেন  ‘ জাগিয়ে পালে তোমার ভোলা হাওয়া’, শিল্পী কল্যানী বসু পরিবেশন করেন ‘ অধরা মাধুরী ধরেছ ছন্দ বন্ধনে’, শিল্পী অর্চনা সাহা পরিবেশন করেন ‘আয় তবে খেলা ভাঙ্গার খেলা খেলবি’।

এছাড়াও একক কন্ঠে শিল্পী ফেরদৌসার রহমান সঙ্গীত পরিবেশন করেন। নৃত্য পরিবেশন করেন শিল্পী মৌরী, অলিভা ও পুজা। রবী ঠাকুরের কবিতা আবৃত্তি করেন নীনা। অনুষ্ঠান ঘোষনা  ও পরিচালনা করেন রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ,দিনাজপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক নুরুল মতিন  সৈকত।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখতে গিয়ে জেলা কালচারাল অফিসার আসফ-উদ-দৌলা জুয়েল মননে চেতনায় রবীন্দ্রনাথকে ধারণ করার জন্য সকলের প্যতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, আমাদের চিত্ত বিকশিত হোক রবীন্দ্র চর্চার মধ্য দিয়ে। তার গান, নৃত্য, কাব্য, গল্পের স্ফুরণ হোক আমাদের চিন্তায় ও আদর্শে।

প্রভাতী অনুষ্ঠানের সমাপ্তি বক্তব্যে রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ,দিনাজপুর শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রবিউল আওয়াল খোকা বলেন, কবিগুরু তার গান,কবিত,গল্প ও নাটকের মাধ্যমে অসীম আনন্দে ভ্রমণ করেছেন। আমরাও যদি তার মত করে ভাবতে পারি তাহলে আমরা সমাজের জন্য অনেক কল্যাণ বয়ে আনতে পারব।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য