আমাদের খাবারের মেন্যুতে ভর্তা সবসময় একরকম বৈচিত্র এনে দেয়। একঘেয়ে খাবার খেতে খেতে যখন আমাদের জিহ্বা থিতিয়ে আসে, তখন ভর্তার কোনো বিকল্প নাই। মুরগির মাংস দিয়ে এখন নতুন ধরণের একটা ভর্তা তৈরী করছি যেটা তৈরী করতে বাটা/পেষার কোনো ঝামেলা নাই। আবার তৈরী করে ফ্রিজেও রেখে দেয়া যাবে অন্তত ৩/৪ দিন। আর একদম ভিন্ন ধরণের এই ভর্তাটি সামনে পেলে আমাদের বিশ্বাস আর কোনো কিছুই লাগবে না এক প্লেট ভাত শেষ করতে। চলুন শিখে ফেলি হাতে ডলে মুরগির মাংসের ভর্তা।

 

 

তৈরী করতে লাগছে –
▶ মুরগির মাংস ১ কাপ
▶ শুকনো মরিচের গুঁড়ি ০.২৫ চা চামুচ
▶ লবণ: সেদ্ধ করার সময় ০.২৫ চা চামুচ, ভর্তায় ০.৫ চা চামুচ
▶ হলুদর গুঁড়ি ০.২৫ চা চামুচ
▶ জিরা গুঁড়ি ০.২৫ চা চামুচ
▶ ধনে গুঁড়ি ০.২৫ চা চামুচ
▶ আদা বাটা ০.২৫ চা চামুচ
▶ রসুন বাটা ০.২৫ চা চামুচ
▶ শুকনো মরিচ ৬/৭ টি
▶ পিঁয়াজ কুচি ১ কাপ
▶ সরিষার তেল ২ টেবিল চামুচ
▶ আদা কুচি ০.৫ চা চামুচ
▶ রসুন কুচি ১ টেবিল চামুচ

✔ ঝাল কম খেতে চাইলে শুকনো মরিচ কম দিতে পারেন

✔ চাইনিজ/ইন্ডিয়ান রসুন মেশিনে বাটলে অনেক সময় সবুজ হয়, আবার অনেক কায়দা করে এটাকে সাদাও রাখা যায়। আমি মেশিনে করি দেখে মাঝে মাঝে আমার রসুন বাটা সবুজ হয়। আর যেহেতু রান্নায় দেয়ার পরে রঙ এর কোনো গুরুত্ব থাকছে না, তাই আমি রসুন বাটার রঙ সাদা করার কোনো প্রয়োজন বোধ করিনা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য