ইরানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিশেষজ্ঞরা বিশ্বে প্রথমবারের মতো আয়নিত ছাঁকনি বা আয়নাইজড ফিল্টার বসান মুখোশ তৈরির প্রযুক্তি অর্জন করেছে। পাশাপাশি এ মুখোশের গণউৎপাদন শুরু করেছে।

ইরান পুরোপুরি নিজস্বভাবে এ প্রযুক্তি অর্জন করেছে এবং ইরানের উৎপাদিত এ মুখোশ বা মাস্কের কোনও প্রতিদ্বন্দ্বী বাজারে নেই। এ মুখোশের গণউৎপাদন ব্যবস্থার উদ্বোধন করেন ইরানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির হাতামি।

তিনি বলেন, আধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি এ মুখোশ ভাইরাসের বিরুদ্ধে অধিক নিরাপত্তা দেবে। এটি অনেক দীর্ঘ সময় প্রায় ৫০ ঘণ্টা ব্যবহার করা সম্ভব হবে বলেও জানান তিনি।

তুলনামূলক ভাবে দামে সস্তা এ মুখোশ প্রতিদিন ১ লাখ তৈরির সক্ষমতা ইরানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের আছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, আগামী মাসের মধ্যে এ সক্ষমতা ৫ লাখে পৌঁছাবে।

সাধারণত সম পরিমাণ ধনাত্মক চার্জ যুক্ত প্রোটন এবং ঋণাত্মক চার্জ যুক্ত ইলেকট্রন থাকায় সব পরমাণুই বিদ্যুৎ আধান বা চার্জ নিরপেক্ষ হয়। ইলেকট্রন গ্রহণ বা অপসারণের মধ্য দিয়ে ইলেকট্রন এবং প্রোটনের এ সমতা নষ্ট হলে পরমাণু ধনাত্মক(+) বা ঋণাত্মক(–) চার্জ যুক্ত হয়। আর পরমাণুর এ অবস্থাকে আয়ন বলা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য