রংপুরে কিছুতেই থামানো যাচ্ছেনা টিসিবি’র পণ্যের কালোবাজারি। গত ৩ দিনে বিপুল পরিমান টিসিবি’র পণ্য উদ্ধার ও ৩ জনকে গ্রেফতার করা হলেও থামছে অবৈধ মজুদের ব্যবসা।

শনিবার দুপুরে নগরীর পূর্ব শালবন এলাকায় এক ব্যবসায়ীর বাসা থেকে মহানগর ডিবি পুলিশ টিসিবি’র পণ্য উদ্ধার করে। এ সময় ওই ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানাগেছে, নগরীর পূর্বশালবন এলাকার লুৎফর রহমান গালামালের ব্যবসা করেন। তিনি অধিক মুনাফার আশায় টিসিবি’র পণ্য নিজ বাড়িতে মজুদ করে রাখেন।

মহানগর ডিবি পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ৫ কার্টুণ ৫ লিটার বোতলের সোয়াবিন তেল, ২২ কার্টুন ২ লিটার বোতলের সোয়াবিন তেল এবং দুই বস্তা চিনি উদ্ধার করে।

এ সময় ওই ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়। উদ্ধারকরা পণ্যগুলো টিসিবি’র ডিলার আজমল ও আনোয়ারের বলে জানায় পুলিশ। আটককৃতের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করা হয়েছে।

এর আগের দিন শুক্রবার বিকেলে নগরীর পশ্চিম খাসবাগ এলাকা থেকে এক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে টিসিবি’র আড়াই লাখ টাকার পণ্য উদ্ধার করা হয়।

ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক আবদুল হালিমকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে ৭ এপ্রিল নগরীর বাবুপাড়া এলাকায় আবদুল খালেক মিয়ার গোডাউন থেকে টিসিবি’র বিপুল পরিমাণ ভোজ্যতেল, মসুর ডাল, চিনি, পেঁয়াজ উদ্ধার করা হয়।

এ সময় গোডাউন মালিক আবদুল খালেককে না থাকায় তার কর্মচারী মোহাম্মদ সামিকে গ্রেফতার করা হয়।

ডিবি’র অতিরিক্তি উপ-পুলিশ কমিশনার উত্তম প্রসাদ পাঠক জানান, টিসিবি’র পণ্য যারা অবৈধভাবে মজুদ করছে তাদের বিরুদ্ধো অভিযান অব্যাহত থাকবে। এখন পর্যন্ত যাদের আটক করা হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য