দিনাজপুর সংবাদাতাঃ বৈশিক করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রামণ রোধে আইসোলেশ তৈরি করায় আতঙ্কে রোগী শূন্য হয়ে পড়েছে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি।

সোমবার সকালের ৫০ শয্যার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, বহির্বিভাগ ও জরুরী বিভাগসহ পুরো হাসপাতাল রোগী শূন্য। শয্যাগুলো পড়ে আছে ফাঁকা। সকালেই রোগী ভর্তি হয়েছে পুরুষ ওয়ার্ডে ৫জন ও মাহিলা ওয়ার্ডে চারজন। তারাও দুপুরের মধ্যে হাসপাতাল ছেড়ে বাসায় যাবেন। তাছাড়াও সেখানে শুধু ঘুরে বেড়াচ্ছে কয়েকটি বিড়াল। হাসপাতালটির এ চিত্রের কারণ করোনা ভাইরাস সংক্রামণ আতঙ্ক।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালে প্রতিদিন ফুলবাড়ী উপজেলাসহ আশপাশের পাঁচটি উপজেলার মানুষ প্রায় ৩ থেকে ৪শতাধিক বিভিন্ন রোগী আউটডোরে চিকিৎসাসেবা নিতে আসেন। বর্তমানে আউটডোরে আসছেন মাত্র ৫০-৬০জন। এছাড়াও জরুরী বিভাগে রোগী থাকতো প্রতিদিন আসতেন ৮০ থেকে ১০০ জন। বর্তমানে ২৫-৩০জন। চলতি মার্চের প্রথম সপ্তাহে রোগী ছিলো আন্তঃ বিভাগে ভর্তি ছিলো ৪০-৪৫জন। বর্তমানে ভর্তি রয়েছে ৯জন। তার মধ্যে পুরুষ রয়েছেন ৫জন এবং মহিলা ৪জন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হাসানুর হোসেন বলেন, ফুলবাড়ী ৫০ শয্যার হাসপাতা। হাসপাতালের নতুন ভবনের তিন তলায় ৫শয্যার আইসোলেশন ওয়ার্ড করা হয়েছে। সেখানে করোনা সংক্রমিত কোন রোগী নেই। সাধারণ ওয়ার্ডের রোগীরা করোনা আতঙ্কে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন না। যে ৯জন আছেন তারাও পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য