দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর ঘোড়াঘাট উপজেলার ২নং পালশা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোঃ কবিরুল ইসলাম দুস্কৃতিকারীদের হাতে নির্মম ভাবে আহত হয়ে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এঘটনায় পুলিশ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে।

দিনাজপুর ঘোড়াঘাট থানায় অফিসার্স ইনচার্জ মোঃ আমিরুল ইসলাম জানান, এই ঘটনায় গতকাল রোববার সকাল থেকে দুৃপুর পর্যন্ত পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতাকৃতরা হলেন, জেলার ঘোড়াঘাট উপজেলার আমড়া গ্রামের তসলিম উদ্দিনের পুত্র তানভির রেজা (২৮), একই গ্রামের হারুনুর রশিদের পুত্র হাবিবুর রহমান (২২), তোফাজ্জল হোসেনের পুত্র মামুনুর রশিদ (৪৮) এবং একই উপজেলার বেলোয়া গ্রামের আব্দুল লতিফের পুত্র হারুনুর রশিদ (২৫) এবং গোপালপুর চৌধুরীপাড়া গ্রামের মমিনুল ইসলামের পুত্র ইসতিয়াক মাহমুদ (২৬)। গ্রেফতারকৃতদের থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাদেরকে আজ রোববার বিকেলে দিনাজপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে প্রেরণ করা হবে বলে সুত্রটি নিশ্চিত করেছে।

পুলিশের সুত্রটি জানায় আহত চেয়ারম্যান কবিরুল ইসলামকে গতকাল রোববার দুপুর ১২টায় ঘোড়াঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। ঘোড়াঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাঃ নুরু নেয়াজ আহম্মেদ জানান, শনিবার রাত সাড়ে ১০ টায় কবিরুল ইসলামকে গুরুতর অবস্থায় এই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাকে দুস্কৃতিকারীরা ছুড়িকাঘাত করে গলায় ও গলার পেছনে গুরুতর জখম করেছে। তার শরীরে ৮টি সেলাই দেয়া হয়েছে।

আহতের পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, শনিবার চেয়ারম্যান কবিরুল ইসলাম রাত ৮টায় ইউনিয়ন পরিষদের কাজ সেরে তার বাড়ী আমড়া গ্রামের ফেরার পথে পিছন থেকে দুস্কৃতিকারীরা তাকে ছুড়িকাঘাত করে ঘটনাস্থলে রাস্তায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এরপর প্রতক্ষ্য দর্শীরা উদ্ধার করে ঘোড়াঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। শনিবার রাতেই ঘোড়াঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান রাফে খন্দকার শাহেনশাহ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম দেখতে যান।

রোববার সকালে দিনাজপুর ৬ আসনের সাংসদ শিবলী সাদিক ঘোড়াঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ইউপি চেয়ারম্যান কবিরুল ইসলামকে দেখতে যান। তিনি তাৎক্ষনিক তার উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাকে প্রেরনের জন্য ব্যবস্থা করেন। তিনি পুলিশকে এই ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন।

পুলিশের সুত্রটি জানায়, এই ঘটনায় গতকাল রোববার দুপুর ১২টায় কবিরুল ইসলামের পুত্র আরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে গ্রেফতারকৃত দুস্কৃতিকারীরা সহ তাদের সহযোগীদের আসামী করে ঘোড়াঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য