কুড়িগ্রামে সবুজের চাদরে ভরে উঠেছে বোরো ফসলের মাঠ। এমন সবুজের সমারোহে চাষিদের মুখে হাসি ফুটলেও প্রাকৃতিক দুর্যোগ নিয়ে আশংকায় রয়েছেন তারা।

নিয়মিত পরিচর্চা ও কীটনাশক প্রয়োগে বোরো চারা বেড়ে উঠছে। চাষিরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন ভাল ফলনের জন্য।

উলিপুর উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের গোড়াই গ্রামের নূরুজ্জামান জানান, এখন পর্যন্ত আবাদ আশানুরূপ হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে ভাল ফলন হবে।

তবে অতিখরা ও কালবৈশাখীর কারণে অনেক সময় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়। তাতে একদিকে যেমন খরচ বাড়ে তেমনি ফলন খারাপ হয়।

পাঁচগাছী ইউনিয়নের কাচিচরের বিউটি বেগম বলেন, সবকিছু ঠিকঠাক আছে। আমরা সঠিকভাবে পরিচর্চা করছি। আশা করছি তেমন কোনো ক্ষতি হবে না।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান প্রধান বলেন, কৃষি বিভাগ থেকে কৃষকদের পাশে থেকে পরামর্শ দিচ্ছেন মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তারা। এবার বোরোর ফলন ভাল হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে ভাল ফলন ও ভাল দাম পাবেন কৃষকরা।

এ জেলায় এ বছর এক লাখ ১৫ হাজার ১১০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ হচ্ছে বলে তিনি জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য