রংপুর সদর উপজেলার মমিনপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রেজওয়ানুল হক মঙ্গলবার থেকে নিখোজ রয়েছে। স্বজনরা অভিযোগ করেছে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা তাকে অপহরন করে গুম করে রেখেছে । । এ ঘটনায় কোতয়ালী থানায় নিখোজ বিএনপি নেতার স্ত্রী রীনা বেগম জিডি করেছেন।  নিখোজ বিএনপি নেতা রেজওয়ানুল হকের স্ত্রী রীনা বেগম জানান তিনি রংপুর সদর উপজেলা পরিষদের নিকর্বাচনে বিএনপি প্রার্থী হিসেবে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদনিদ্বতা করছেন। মঙ্গলবার সকাল থেকে তিনি বিভিন্ন এলাকায় জন সংযোগ করছিলেন। বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে তার স্বামী রেজওয়ানুল হক মোবাইল ফোনে তাকে জানান রংপুর নগরীর পায়রা চত্বর এলাকায় একটি ছাপা খানায় তার নির্বাচনী পোষ্টার ছাপাতে দিয়েছেন। ১ ঘন্টা পর সেই পোষ্টার নিয়ে আসবেন। কিন্তু এর পর দুপুর ১২ টার পর থেকে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। এরপর মঙ্গলবার গভীর রাত পর্যন্ত বিভিন্ন স্তানে খোজাখুজি করেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। মঙ্গলবার রাত ১১ টায় তিনি এ বিষয়ে কোতয়ালী থানায় সাধারন ডায়রী করেছেন। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা তার স্বামীকে অপহরন করে গুম করে রাখতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করেন। অন্যদিকে নিখোজ বিএনপি নেতার বাবা অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক জানান তার ছেলে বিএনপি করে ২ মাস আগে তাকে পুলিশ গ্রেফতার করে। ২২ দিন কারাগারে আটক থাকার পর জামিনে ছাড়া পায় সে। তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করে দ্রুত তাকে উদ্ধার করার দাবি জানান। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা এস আই হোসেন আলী জানান আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে নিখোজ রেজওয়নুলকে উদ্ধার করার চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য