মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥ নীলফামারীর সৈয়দপুরের বাঁশবাড়ী এলাকায় একজন সন্দেহভাজন করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগী পাওয়ায় সংশ্লিষ্ট এলাকায় ১০টি বাড়ি ও ৭টি দোকান লকডাউন ঘোষণার প্রেক্ষিতে শহরজুড়ে সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় নির্দিষ্ট দোকানপাট খোলা রাখা ব্যতিত অন্যান্য প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা এবং জনসমাগম তথা জটলা প্রতিরোধে প্রশাসন মাঠে নেমেছে।

২৫ মার্চ সকালে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ সম্মিলিতভাবে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক ও ব্যবসা কেন্দ্রগুলোতে অভিযান চালায়। এসময় ওষুধের দোকান, মুদি দোকান ও কাঁচা বাজার তথা সবজির দোকান ব্যতিত অন্যান্য যেসকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রয়েছিল তা বন্ধ করে দেয়।

সে সাথে রাস্তায় চলাচলকারী পথচারীসহ মোড়ে মোড়ে আড্ডারত একের অধিক মানুষকে ছত্রভঙ্গ করে নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থানের জন্য নির্দেশ প্রদান করে। এতে পুরো শহরজুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয় এবং সাধারণ মানুষ যারা বাড়ির বাইরে বেড়িয়েছিল তাদের মাঝে সরকারী নির্দেশনা মানার ক্ষেত্রে কিছুটা মানসিক প্রস্তুতি দেখা গেছে।

গত কয়েকদিন থেকে সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে সৈয়দপুর শহরের প্রায় প্রতিটি এলাকায় সব ধরণের দোকানপাট খোলা রাখা হয়েছিল। মানুষজনও দলে দলে বের হয়ে বাজার, রাস্তার মোড়সহ বিভিন্ন স্থানে জটলা করে অবস্থান করছিল। একারণে সচেতন ব্যক্তিরা বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের পদক্ষেপ দাবি করে সোস্যাল মিডিয়ায় সোচ্চার হয়ে উঠে। এখন এ ব্যবস্থা গ্রহণের কারণে প্রশাসনকে সাধুবাদ জানিয়েছেন বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন।

এ ব্যাপারে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাসিম আহমেদ জানান, সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত দোকানপাট বন্ধ থাকবে এবং জনসমাগত থাকবেনা। শুধু ওষুধ, মুদি ও কাচা তরিতরকারির দোকান খোলা থাকবে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ আদেশ বলবৎ থাকবে। তিনি সৈয়দপুরবাসীকে এ নির্দেশনা মেনে যথানিয়মে ঘরে অবস্থানের মাধ্যমে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রশাসন তথা সরকারকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান।

সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র অধ্যক্ষ মোঃ আমজাদ হোসেন সরকার মুঠোফোনে জানান, প্রশাসন যে উদ্যোগ নিয়েছে তা পরিপালন করা প্রত্যেক নাগরিকের দায়িত্ব। এর ফলে আমরা প্রত্যেকে করোনার মরণঘাতি প্রকোপ থেকে নিজেরা যেমন রক্ষা পাবো তেমনি পুরো সৈয়দপুরবাসী তথা জাতিকে রক্ষা করতে পারবো।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য