দিনাজপুর সংবাদাতাঃ বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের সাথে সেনাবাহিনীর জরুরী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতেই জেলা প্রশাসনের সাথে কাজ করবে সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

মঙ্গলবার বেলা ১২টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম, পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন, ল্যাফ. কর্নেল মো. মামুনুর রহমান সিদ্দিকি (অধিনায়ক-৪ হর্স), মেজর এসএম মমিনুল ইসলাম (উপ-অধিনায়ক-১১ ইস্ট বেঙ্গল), মেজর আরিফ (ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক-৩৬ বীর), বিজিবির পক্ষে ছিলেন ল্যাফ. কর্নেল মো. রেজাউল করিম, র‌্যাবের পক্ষে ছিলেন ডিএডি মো. মোফাজ্জল হোসেন-র‌্যাব-১৩।

জরুরী বৈঠকে করোনা প্রতিরোধ বিষয়ে দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের সাথে সেনাবাহিনীর সদস্যরা পুরো জেলায় ৩টি ইউনিটে ভাগ হয়ে কাজ করবেন। এর মধ্যে ফুলবাড়ী-বিরামপুর-হাকিমপুর-নবাবগঞ্জ-ঘোড়াঘাট একটি ইউনিট, খানসামা-বীরগঞ্জ-বোচাগঞ্জ-কাহারোল মিলে একটি ইউনিট, সদর-পার্বতীপুর-চিরিরবন্দর-বিরল উপজেলা মিলে একটি ইউনিট হয়ে কাজ করবে সেনাবাহিনীর সদস্যরা বলে জানা যায়।

বৈঠক শেষে জেলা প্রশাসক মো.মাহমুদুল আলম বলেন, ‘আমরা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সারাদেশের ন্যায় সেনাবাহিনী, বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যদের নিয়ে মাঠে কাজ করব। আগামী ২৬ তারিখ থেকে দিনাজপুরের মানুষজন জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হতে পারবেন না। যদি কেউ নিয়ম না মেনে বাড়ির বাইরে বের হন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে হাসপাতাল, ওষুধ ফার্মেসী, কাচাবাজার, কৃষকদের কীটনাশকের দোকান, সীমিত আকারে মুদি দোকান খোলা থাকবে।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য