দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় খবরের কাগজ নিতে অনাগ্র দেখা দিয়েছে অনেক পাঠকদের মধ্যে,এতে কমে গেছে খবরের কাগজ বিক্রি।

এদিকে খবরের কাগজ বিক্রি কমে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছে খবরের কাগজের এ্যাজেন্ট ও বিক্রেতারা।

তবে চিকিৎসকেরা বলছেন, দৈনন্দিন জিবন-যাপনের জন্য টাকাসহ কাগজের অনান্য জিনিস ব্যবহার করতে হচ্ছে,সেখানে পেপারের বিষয়টি নিয়ে আতঙ্ক ছড়ার কোন যুক্তি নাই। খবরের কাগজের এ্যাজেন্ট মোন্নাফ মন্ডল বলেন, প্রতিদিন পেপার বিক্রেতারা অর্ধেক পেপার ফেরৎ দিচ্ছে, এতেকরে তাকে বড় রকমের লোকশানে পড়তে হচ্ছে। এর পর আগামী ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল প্রর্যন্ত সরকারী ছুটি ঘোষনা হওয়ায়, অফিস আদালত গুলো বন্ধ হয়ে যাবে, এতে খবরের কাগজের বিক্রি একবারে কমে যাবে। এতে পরিবার পরিজন নিয়ে চলা কঠিন হয়ে পড়বে।

পেপার বিক্রেতা মঞ্জুরুল হোসেন বলেন প্রতিদিন সে ২০০শ পেপার বিক্রি করতো, এখন ১০০ পেপরেই বিক্রি হচ্ছেনা। অতঙ্কে খবরের কাগজ কিনতে অনাগ্রহ প্রকাশ করছে অনেকে,পাঠকরা পেপারের খবর অনলাইনে পড়তে আগ্রহ প্রকাশ করছে। একই কথা বলেন পেপার বিক্রেতা হাবিবুর রহমান, ইদ্রিস আলী, মেরাজ হোসেনসহ অনেকে।

পেপার এ্যাজেন্ট আবেদ আলী ও আসলাম জোয়াদ্দার বলেন করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় এখন পেপারে ব্যবসা বন্ধ হতে বসেছে, এই সময় তাদের মোটা অংকে লোকশানে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার এনাতেুল্যা নজিম বলেন, পেপারের মাধ্যেমে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা একটি গুজব, কারন দৈনন্দিন জীবন যাপনের জন্য টাকাসহ বিভিন্ন আসবার পত্র ব্যবহার করতে হচ্ছে। তবে তিনি সচেতন ভাবে ব্যবহার করার পরামর্শ দেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য