দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে প্রতিদিন হোম কোয়ারেন্টাইনের প্রবাসী রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে গত ২৪ ঘন্টায় ১০ জন কে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখাসহ মোট রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৬০ জনে । তবে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের অভিযোগ করোনা প্রতিরোধে যে সমস্ত উপাদান প্রয়োজন তা পর্যন্ত পরিমানে পাওয়া যাচ্ছে না।

স্বল্প পরিমানে দিনাজপুর এম,আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালে কিছু হ্যান্ড গ্লোফস , মাস্ক , গ্নাউনসহ কিছু উপকরন পাওয়া গেলেও উপজেলা পর্যায়ের হাসপাতাল গুলিতে করোনা প্রতিরোধে সেই সমন্ত উপকরন দরকার তা পাওয়া যায়নি । ফলে হাসপাতালগুলিতে আইসোলেশন স্থপান করা গেলেও কোন প্রকান ব্যবস্থা গ্রহন করা যায়নি ।

দিনাজপুরের সদর , হাকিমপুর , নবাবগঞ্জ , খানসামা ,বিরামপুর , কাহারোল , বীরগঞ্জ ,ঘোড়াঘাট , বোচাগঞ্জ , বোচাগঞ্জ, চিরিরবন্দর ও পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া ৩ চীনা নাগরিকসহ ৬০ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখেন জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

আজ শনিবার সকাল ৮ টার দিকে জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ আব্দুল কুদ্দুস ৬০ জন বিদেশ ফেরত ব্যাক্তিদের কে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ।

নভেলা করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি এড়াতে বিদেশ ফেরত দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় ৪ জন, সদরের ৪ জন, পার্বতীপরের বড়পুকুরিয়ায় ৩ জন চীনা নাগরিকসহ ১১ জন, বোচাগঞ্জ ৫, বিরামপুরে ১০জন, ঘোড়াঘাটে ৮ জন, কাহারোলে ৫ জন, বীরগঞ্জে ৪ জন, হাকিমপুরে ৫ জন, নবাবগঞ্জে ২ জন, বোচাগঞ্জে ৫ এবং চিরিরবন্দরে ২ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে ।

এছাড়া আরোও হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে ২৩ জন সুস্থ হয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য